অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধনের সময় ১ মাস বাড়ল

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

অনলাইনে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) নিবন্ধনের সময় আরও এক মাস বাড়ানো হয়েছে। আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত এর আওতায় নিবন্ধন করতে পারবেন ব্যবসায়ীরা। আগের সময় সীমা ছিল ৩১ অক্টোবর।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) বৃহস্পতিবার এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। এফবিসিসিআইসহ অন্যান্য ব্যবসায়ী সংগঠনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সময় বাড়ানো হয়েছে। এরপর সময় বাড়ানো হবে না বলে জানিয়েছে এনবিআর।

রাজস্ব বোর্ডের ভ্যাট বিভাগের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা বলেন, ৩০ নভেম্বরের মধ্যে তের ডিজিটের ইলেকট্রনিক বিজনেস আইডেনটিফিকেশন নাম্বার বা ই-বিআইএন নিতেই হবে। যারা নেবে না, আমদানি-রপ্তানিসহ অন্যান্য ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যাবে তাদের। 

ভ্যাট প্রকল্প অফিস সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত অনলাইনের আওতায় ভ্যাট নিবন্ধন নিয়েছে প্রায় ৮৩ হাজার ৫০০ প্রতিষ্ঠান। তবে এনবিআরের লক্ষ্য হচ্ছে কমপক্ষে দুই লাখ এর আওতায় আনা। 

দুই বছর স্থগিত থাকার পর গত ১ জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন কার্যকর হয়। এ আইনে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করা হয়। নতুন নাম্বার ১৩ ডিজিটের। পুরোনো নাম্বার ছিল ৯ ডিজিটের। তেরো ডিজিট সংখ্যাকে ইলেকট্রনিক বিজনেস আইডেনটিফিকেশন নাম্বার বা সংক্ষেপে ই-বিআইএন বলা হয়। এটি ব্যবসায়ী বা করদাতাদের কাছে 'বিন' নামেই পরিচিত।

এনবিআর বলেছে, যে সব প্রতিষ্ঠান বা করদাতা নিবন্ধন নেবে না, তাদের ঋণপত্র ইস্যু করা হবে না। ফলে অন্যান্য ব্যাকিং কার্যক্রম ব্যাহত হবে। কাস্টমস স্টেশনে বিশেষ সফটওয়্যার এসআইকুডা সিস্টেম কার্যক্রম পরিচালনা করা যাবে না। কোনো সরকারি-বেসরকারি দপ্তরে দরপত্রে অংশ ও অনলাইনে মাসিক ভ্যাট রিটার্ন গ্রহণ করা হবে না। ফলে নিয়মিত ভ্যাট পরিশোধ করা যাবে না।