১ দিনের ব্যবধানে আবার বাড়ল স্বর্ণের দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

মাত্র একদিনের ব্যবধানে আবার বাড়ল স্বর্ণের দাম। ভরিতে এক হাজার ১৬৬ টাকা বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)।

দাম বাড়ার ফলে সবচেয়ে ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেট স্বর্ণ এখন ৫৫ হাজার ৬৯৬ টাকায় বিক্রি হবে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে নতুন দর কার্যকর হবে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার থেকে সব ধরনের সোনার দর একই পরিমাণ বাড়ানো হয়েছিল। এর আগে গত ২৪ জুলাই আরেক দফা বাড়নো হয় স্বর্ণের। সে সময়ও ভরিতে এক হাজার ১৬৬ টাকা বাড়ানো হয়েছিল।

বেশ ঘটা করে স্বর্ণ করমেলা করার পর ৪ জুলাই সোনার দর বাড়িয়েছিল বাজুস। সেবার ভালো মানের স্বর্ণ ভরিতে দুই হাজার টাকার বেশি বাড়ানো হয়েছিল।

তার আগে ১৩ জুন ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার দিন প্রতি ভরি ভালো মানের সোনার দাম দেড় হাজার টাকা বাড়ানো হয়। কিন্তু তার চার দিন পরই দাম কমিয়ে আগের অবস্থায় ফেরত নেওয়া হয়। এরপর জুন মাসের শেষে প্রথমবারের মতো স্বর্ণ করমেলার আয়োজন করা হয়। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড-এনবিআর এবং বাজুস এ মেলার আয়োজন করে।

মেলায় ব্যবসায়ীদের হাতে থাকা অপ্রদর্শিত প্রতি ভরি স্বর্ণ এক হাজার টাকায় বৈধ করার সুযোগ ছিল। কিন্তু তাতে খুব একটা ভালো সারা পাওয়া যায়নি।

আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার কারণে স্থানীয় বাজারে সোনার দর বাড়ানো হয়েছে   বলে জানিয়েছেন বাজুসের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা। তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দর প্রতিদিনই বাড়ছে। গত ১০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ উচ্চতায় উঠেছে এর দাম।’

তিনি বলেন, ‘ছয় মাস আগে বিশ্ববাজারে প্রতি আউন্স (৩১.১০৩৪৭৬৮ গ্রাম) স্বর্ণের দর ছিল এক হাজার ২৭০ ডলার। বুধবার তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৫০১ ডলার। এক বছর আগে ছিল এক হাজার ১৭৩ ডলার। সে হিসাবে এক বছরে প্রতি আউন্স সোনার দর ৩০০ ডলার বা ২৫ হাজার টাকা বেড়েছে। সে তুলনায় আমরা খুব কমই বাড়িয়েছি।’

নতুন দর অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার থেকে সারা দেশে প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সবচেয়ে ভালো মানের (২২ ক্যারেট) স্বর্ণ ৫৫ হাজার ৬৯৬ টাকায় বিক্রি হবে। ২১ ক্যারেট স্বর্ণ বিক্রি হবে ৫৩ হাজার ৩৬৩ টাকায়। ১৮ ক্যারেট সোনার দাম হবে ৪৮ হাজার ৩৪৭ টাকা।