ক্রীড়াঙ্গনে নানা আয়োজনে জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকী পালন

March 18, 2020, 6:35 pm নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী ছিল গতকাল। ১৯২০ সালের এই দিনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। দিনটিকে জাতীয় শিশুদিবস হিসেবে পালন করে সরকার। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী নানা আয়োজনে পালন করলো দেশের ক্রীড়াঙ্গণ। যদিও করোনাভাইরাসের কারণে জাতীয়ভাবেই বাদ দেয়া হয়েছে অনেক কর্মসূচি। তারপরও অন্য আঙ্গিকে ক্রীড়াঙ্গন স্বাগত জানিয়েছে স্বাধীনতার স্থপতির জন্ম শতবার্ষিকীকে।
জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ সকাল ৮টায় শুরু করে তাদের কর্মসূচি। এর মধ্যে প্রথমেই বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের এক নম্বর ফটকের পাশে স্থাপিত জাতির পিতার ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর সন্ধ্যায় স্টেডিয়ামে আলোকসজ্জা ও আতশবাজি পোড়ানো হয়।
জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব মো. মাসুদ করিম জানিয়েছেন, ‘সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে কেট কাটার মাধ্যমে পালন করা হয় জাতির জনকের জন্মশত বার্ষিকীর প্রথম দিন। কেক কাটেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। জাতির পিতার নামের বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে আলোকসজ্জা করা হয়। স্বল্প পরিসরে ছিল আতশবাজি।’ স্বল্প পরিসরে জাতীর জনকের জন্মশতবার্সিকী পালন করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। আয়োজন নিয়ে বাফুফের সাধারন সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ বলেন, অন্যদের মতো আমাদেরও বিশাল পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু করোনা ভাইরাসের প্রভাবে আমরা সবকিছুই সীমিত করেছি। আমাদের আয়োজনের মধ্যেছিল কেককেটে জাতীয় জনকের জন্মদিন পালনের পাশাপাশি দোয়া ও গরীবদের মধ্যে থাকার বিতরন। বাফুফে আয়োজন করলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড তাদের সকল কর্মসূচি স্থগিত করেছে করোনার কারনে। দেশের পরিস্থিতি ভালো হলে বড় পরিসরে আয়োজনের কথা জানিয়েছেন ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তরা। বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে উনার রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে বিভিন্ন ক্রীড়া ফেডারেশন। কাল হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ ক্যারম ফেডারেশনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামস্থ ফেডারেশনের কার্যালয়ে দোয়া পরিচালনা করেন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের ইমাম সাইফুল ইসলাম। ক্যারম ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আহমেদ লিয়ন বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বেঁচে থাকলে এখন শতবর্ষে পা দিতেন। আমরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলের পিতা শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার এবং ক্যারম ফেডারেশনের সভাপতি আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের পিতার রুহের মাগফিরাত কামনা করি।’ এ সময় ফেডারেশনের কোষাধ্যক্ষ হাসনাইন ইমতিয়াজ শিহাবসহ ক্যারম ফেডারেশনের খেলোয়াড়, কর্মকর্তা ও আম্পায়াররা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে সন্ধ্যায় এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে বাংলাদেশ মহিলা ক্রীড়া সংস্থা। ধানমন্ডিস্থ সুলতানা কামাল কমপ্লেক্সে দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সভানেত্রী বেগম মাহবুবা আরা গিনি এমপি, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদিকা প্রকৌশলী ফিরোজা করিম নেলীসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। করোনার কারণে মুজিববর্ষের কর্মসূচি কাটছাঁট না হলে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরো স্টেডিয়াম চত্বরের সব ভেন্যু আলোয় উদ্ভাসিত থাকতো। এখন শুধু জাতির পিতার নামের স্টেডিয়ামকে আলোকিত করা হয়েছে।