বিএনপি চালাচ্ছেন তারেক রহমান আর জনগণের অধিকার হরণ করছে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

বিএনপির নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। লন্ডন থেকে তার নির্দেশনায় দল পরিচালিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন। গতকাল শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। : বৃহস্পতিবার সকালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছিলেন, দেশ আওয়ামী লীগ চালাচ্ছে কি না এটা তার সন্দেহ। এর প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের প্রশ্ন করেছিলেন, বিএনপি নামক দলটা কে চালায়? দেশে থেকে কেউ চালায়, না বিদেশ থেকে চালায়? এই প্রশ্নের জবাব দিন? তার পরিপ্রেক্ষিতে খন্দকার মোশাররফ হোসেন এ প্রতিক্রিয়া জানান। তিনি বলেন, ‘বিএনপি কে চালাচ্ছে সেই চিন্তায় চোখের ঘুম হারাম হয়ে গেছে ওবায়দুল কাদেরের।’ : কাদেরকে ইঙ্গিত করে মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘বিএনপি সরাসরি লন্ডনে অবস্থানরত দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান চালাচ্ছেন। তার দিকনির্দেশনায় বিএনপি অতীতের তুলনায় অনেক বেশি ঐক্যবদ্ধ। আমাদের জনপ্রিয়তায় সরকার ভয় পেয়েছে।’ তাই ওবায়দুল কাদের সাহেব এমন মন্তব্য করছেন বলেও জানান তিনি। : খন্দকার মোশাররফ হোসেন সভায় উপস্থিত তরুণ নেতৃত্বের উদ্দেশে বলেন, শুধু ফেসবুকে অ্যাক্টিভ থাকলে হবে না, রাজপথেও তোমাদের সরাসরি অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।’ এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম ও নির্বাহী কমিটির সদস্য ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল। : বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘তাদের (সরকার) উদ্দেশ্য যদি ভালো থাকত, তাহলে বেগম খালেদা জিয়া যে অসুস্থ, তার জন্য তার ব্যক্তিগত ডাক্তারকে চিকিৎসার জন্য যেতে দিত। এক-এগারোতে জেলে থাকার সময় তার চিকিৎসার জন্য ব্যক্তিগত ডাক্তার দেয়া হয়েছিল। তাহলে এখন তাকে দেয়া হবে না কেন?’ : ‘বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং বেগম খালেদা জিয়াকে আদালতের মাধ্যমে রাজনৈতিকভাবে হয়রানি ও বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম নামের একটি সংগঠন। সেখানে বিএনপি স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, ‘বর্তমান সরকার গায়ের জোরের সরকার। খুব সম্ভবত সেই কারণে আন্তর্জাতিকভাবে এই সরকার স্বৈরাচারী সরকার উপাধি নিয়ে এসেছে। তাই বর্তমান সরকার হচ্ছে স্বৈরাচারী সরকার।’ : খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘২০১৪ সালের নির্বাচনে বেগম খালেদা জিয়ার আহ্বানে আওয়ামী লীগ ছাড়া কোনো দলই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেনি। তাই এটা কোনো সঠিক নির্বাচন হতে পারে না এবং দেশে-বিদেশে সঠিক নির্বাচনের কোনো আলামত তারা দেখাতে পারেনি। তাহলে বোঝা যায়, ২০১৪ সালের নির্বাচন বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়া হয় নাই এবং আগামী নির্বাচনও বেগম খালেদা জিয়া ছাড়া হবে না। দেশে-বিদেশে সকল জনসাধারণই বলছে, আগামী নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হতে হবে। আর অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন মানে বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বিএনপিকে নির্বাচন করতে হবে। তা না হলে সেটা নির্বাচন হবে না। বিএনপি ছাড়া নির্বাচন ২০১৪ সালের মতোই হবে- এটা বলার অপেক্ষা রাখে না।’ : বারবার দেশের জনগণকে প্রতারণা করা যাবে না মন্তব্য করে খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘২০১৪ সালের নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ বলেছিল, এ নির্বাচন নিয়ম রক্ষার নির্বাচন। পরবর্তীকালে সকল দলের অংশগ্রহণমূলক একটি নির্বাচন দেয়া হবে। কিন্তু আপনারা তা করেননি, বরং আপনাদের বিদেশি বন্ধু ও দেশের জনগণের সাথে প্রতারণা করেছেন।’ আয়োজক সংগঠনের সভাপতি নাছির উদ্দিন হাজারীর সভাপতিত্বে আলোচনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ।