১০০ বলের ক্রিকেটের পক্ষ-বিপক্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

টি২০ ক্রিকেটের পর নতুন ফরম্যাটে একশ' বলের ক্রিকেটের চিন্তা ভাবনা শুরু করেছেন ক্রিকেট বুদ্ধারা। এ খবর অবশ্য আগেই চাউর হয়ে গেছে। ১৬ ওভারের এই খেলায় ১৫ ওভার হবে স্বাভাবিক নিয়মে একটি ওভার হবে ১০ বলের। সময় বাঁচানো এবং সমর্থকদের আগ্রহ বাড়াতে নতুন এই ক্রিকেট দর্শন। তবে ক্রিকেটের সব দার্শনিক তো এক দর্শনের না। তাই এটা নিয়ে শুরু হয়েছে মত-দ্বিমত। 

নতুন এই ফরম্যানের কথা তুলেছে ক্রিকেটের জনক এবং টি২০'র জনক ইংল্যান্ড।  তবে বর্তমান ও সাবেক ক্রিকেটারদের অনেকে এটাকে স্বাগত জানিয়েছেন। কেউ কেউ আবার না সূচক মত দিয়েছেন। ধারাভাষ্য কক্ষও ভাগ হয়ে গেছে দুই ভাগে।  সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটার ক্রিস ট্রেমলেট যেমন বলেছেন, 'এখন যে ফরম্যাটে ক্রিকেট হয় তাই মানুষ ঠিকমতো বোঝে না। এখন আবার আরেকটা নতুন নিয়ম!'

ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভনের মতে, পাঁচ দিনের ক্রিকেট থেকে একেবারে একশ' বলের প্রতিযোগিতা...শুভকামনা থাকল। পরে আরেকটি টুইট করে বলেন, আটটি দল নিয়ে অনুষ্ঠিত একশ' বলের খেলা বেশ আনন্দদায়কই হবে। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার জেমস ফকনারের জানান, পরিবর্তনে তার কোন বিরোধিতা নেই। কিন্তু তার সংশয় এটা চালিয়ে যাওয়া নিয়ে। 

তবে সাবেক ভারতীয় পেসার আগারকারের চাঁছাছোলা মন্তব্য, 'আমি এর কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছি না। কেন দরকার এটার?'  তবে ইংল্যান্ড  তারকা স্টুয়ার্ট ব্রডের চোখে এটা ক্রিকেটের জন্য খারাপ না,  'এটা নিয়ে আমি খুবই আশাবাদী। অন্যান্য টুর্নামেন্টর থেকে আলাদা বলে ভালো লাগছে।'  সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক মাইক আথারটন বলেন, 'খেলার দৈর্ঘ্য কমানোর আমার সমর্থন আছে।'

ইসিবির প্রস্তাবিত নতুন ক্রিকেট ফর‌ম্যাট অবশ্য চূড়ান্ত হয়নি। তবে এটি চালু করতে বেশ খাটুনি করতে হবে তাদের। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী টম হ্যারিসন জানালেন, 'আমরা এবং এমসিসি (মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব) এটা নিয়ে আলাপ করছি। শেষ পর্যন্ত আমরা একটি ভালো কাঠামো দাঁড় করাতে পারব আশা করছি। একটা আনুষ্ঠানিক কাঠামো দিতে পারলে আশা করি আইসিসিও এটার সঙ্গে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবে।