এসএসসির ফল প্রকাশ আগামীকাল

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

এসএসসি ও সমমানের এবারের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হবে আগামীকাল রোববার। দুপুর ২টা থেকে শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট এ ফল পাওয়া যাবে। পাশাপাশি যেকোনো মুঠোফোন নম্বর থেকে এসএমএস  (খুদেবার্তা) পাঠিয়ে পরীক্ষার্থীরা ফল জানতে পারবে।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ আগামীকাল সকাল ১০টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এসএসসির ফলাফলের সারসংক্ষেপ হস্তান্তর করবেন। এর পর দুপুর ১টায় সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পরীক্ষার ফল ঘোষণার করবেন শিক্ষামন্ত্রী। তার পরই মুঠোফোনো এসএমএস-এর মাধ্যমে ফল জানা যাবে।
এসএমএস-এ যেভাবে পাওয়া পাবে ফলাফল
যেকোনো মুঠোফোন অপারেটর থেকে SSC/DAKHIL লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৮ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠিয়ে ফল জানা যাবে।
এ ছাড়া শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট http://www.educationboardresults.gov.bd থেকেও পরীক্ষার্থীরা ফল জানতে পারবে।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো www.educationboardresults.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়েও ফলাফল ডাউনলোড করতে পারবে শিক্ষার্থীরা।
ফল পুনঃনিরীক্ষা
রাষ্ট্রায়ত্ত্ব মুঠোফোন অপারেটর টেলিটক থেকে আগামী ৭ থেকে ১৩ মে পর্যন্ত এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করা যাবে। ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করতে RSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।
ফিরতি এসএমএসে ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেওয়া হবে—তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর (পার্সোনাল আইডেন্টিফিকেশন নম্বর) দেওয়া হবে। আবেদনে সম্মত থাকলে RSC লিখে স্পেস দিয়ে YES লিখে স্পেস দিয়ে পিন নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। প্রতিটি বিষয় ও প্রতি পত্রের জন্য ১২৫ টাকা হারে চার্জ কাটা হবে।
যেসব বিষয়ের দুটি পত্র (প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র) রয়েছে, সেসব বিষয়ের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করলে দুটি পত্রের জন্য মোট ২৫০ টাকা ফি কাটা হবে। একই এসএমএসে একাধিক বিষয়ের আবেদন করা যাবে, এ ক্ষেত্রে বিষয় কোড পর্যায়ক্রমে ‘কমা’ দিয়ে লিখতে হবে।
গত ১ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার তত্ত্বীয় এবং ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ মার্চ ব্যবহারিক পরীক্ষা হয়। এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৮৯।