ডুয়েটে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেটিভ রিসার্চ আইডিয়া কম্পিটিশন

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

সেন্টার ফর প্রফেশনাল ডেভলপমেন্টের সহায়তায় ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (ডুয়েট) বস্ত্র-কৌশল বিভাগের আয়োজনে এবং প্রায় ২৩টি সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণে প্রথম আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেটিভ রিসার্চ আইডিয়া কম্পিটিশন এবং ক্যারিয়ার ডেভলপমেন্ট সেমিনার ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সেমিনারে অংশগ্রহণকারী বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের ছাত্রছাত্রীদের থেকে প্রাপ্ত শতাধিক রিসার্চ আইডিয়া থেকে মান ও প্রয়োগ বিবেচনায় মুখ্য ২০টি আইডিয়া প্রদর্শনের সুযোগ দেওয়ার কথা ছিল। তবে একটি দল অনুপস্থিত থাকায় আইডিয়া উপস্থাপন করে ১৯টি দল।
সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন ডুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলাউদ্দিন। সভাপতিত্ব করেন বস্ত্র-কৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. আব্দুস শাহিদ।
অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীদের প্রাইজমানি স্পন্সর করেছে কটন ম্যাক্স লিমিটেড। সমগ্র অনুষ্ঠানে ন্যাশনাল মিডিয়া পার্টনার ছিল বহুল প্রচারিত দৈনিক আমাদের সময়।
আইডিয়া উপস্থাপন শেষে ক্যারিয়ার ডেভলপমেন্ট বিষয়ক সেমিনারে বক্তা হিসেবে থ্রি টিএলইউএসএ-এর কান্ট্রি ম্যানেজার তুষার কুমার পাল তার বক্তব্য প্রদান করেন।
উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলাউদ্দিন বলেন, উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে টেক্সটাইল শিল্পকে এগিয়ে নিতে রিসার্চ আইডিয়া কম্পিটিশন নতুন বস্ত্র প্রকৌশলীদের আরও উদ্যমী করে তুলবে।
প্রতিযোগিতায় প্রথম হয় বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের টিম ‘টেক্সপোশন’। দ্বিতীয় হয় ডুয়েটের টিম ‘টেক্স-স্মার্ট’ এবং তৃতীয় হয়েছে কুয়েটের টিম ‘টুইস্ট’। এ ছাড়াও ডুয়েট ও বুটেক্সের আরও টিম যথাক্রমে ‘টেক্সটাইল ড্রিম’ ও ‘ইউনিক মাইন্ড’কে বিশেষ বিবেচনায় পুরস্কৃত করা হয়।
চিফ কো অর্ডিনেটর নয়ন চাদ রায় প্রোগ্রামের সফলতা তুলে ধরে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং পৃষ্ঠপোষক গণসহায়তা অব্যাহত রাখলে ভবিষ্যতে আরও বড় পরিসরে এই কম্পিটিশন আয়োজন করা হবে।
সেরা তিন আইডিয়া প্রদর্শনকারীকে প্রদান করা হয় প্রাইজমানি, ক্রেস্ট ও সনদ। এ ছাড়া দেওয়া হবে নিজস্ব আইডিয়া অনুযায়ী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গবেষণার সুযোগ।