ঐশীর বাবা-মা হত্যা মামলায় গৃহকর্মী সুমি খালাস

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

২০১৩ সালের আগস্টে রাজধানীর চামেলীবাগে পুলিশ পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী স্বপ্না রহমানকে হত্যা মামলায় গৃহপরিচারিকা খাদিজা আক্তার সুমিকে খালাস দিয়েছেন আদালত। রোববার ঢাকার মহানগর শিশু আদালতের বিচারক মহানগর দায়রা জজ আল মামুন এ রায় দেন। 

ওই হত্যাকাণ্ডে মাহফুজুর-স্বপ্না দম্পতির মেয়ে ঐশী রহমানকে সহযোগিতার অভিযোগ ছিল সুমির বিরুদ্ধে। ঘটনার সময় তার বয়স ছিল ১১ বছর।রায়ের পর সুমি বলে, আমি সহযোগিতা করি নাই। আমি যে দোষী না সেটা বলছিলাম। আরও আগে তারা বিচার শেষ করতে পারত।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১৩ সালের ১৬ আগস্ট রাজধানীর মালিবাগের চামেলীবাগের বাসা থেকে পুলিশ পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী স্বপ্না রহমানের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর পর দিন তাদের মেয়ে ঐশী রহমান রমনা থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন এবং আদালতে হত্যার অভিযোগ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন। 

এ মামলায় ২০১৫ সালের ১২ নভেম্বর ঐশীর মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল। এরপর ২০১৭ সালের ৫ জুন হাইকোর্ট দণ্ড পরিবর্তন করে তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেন। আর গৃহকর্মী সুমি অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় মামলার তার অংশের বিচার চলে শিশু আদালতে।