বাড্ডায় হত্যা মামলায় এমপির ভাগ্নে জেলহাজতে

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

রাজধানীর বাড্ডায় বেরাইদ ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের ছোটভাই কামরুজ্জামান দুখু হত্যা মামলায় সংসদ সদস্য রহমত উল্লাহর ভাগ্নে ফারুক আহমেদকে গ্রেফতার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠিয়েছে আদালত। সোমবার সকালে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট খুরশিদ আলমের আদালত এ নির্দেশনা দেন।
 
আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী হাজির হয়ে জামিন নিতে গেলে ফারুক আহমেদের আরেক ভাই আইয়ুব ও তার চাচাতো ভাই বেরাইদ ইউপি সদস্য মারুফকেও গ্রেফতার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হয়।
 
আদালত এজাহারভুক্ত ২১ আসামিকে জামিন দিয়েছে। পলাতক রয়েছেন আরো তিনজন। তারা হলেন, মোহসিন কবির, ইমদাদ হোসেন ও মহসিন।
 
গত ২২ এপ্রিল বেরাইদে একদল দুর্বৃত্ত গুলি চালালে কামরুজ্জামান দুখু নিহত হন ও গুলিবিদ্ধ হন অন্তত ১০ জন। এ ঘটনায় জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে এমপি রহমত উল্লাহর ভাগ্নে ফারুক আহমেদকে প্রধান আসামি করে ২৭ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় আজ আদালতে ২৪ জন হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন।
 
আদালতে সরকার পক্ষ থেকে জামিন বাতিলের প্রার্থনা করেন কোর্ট জিআরও শেখ মোহাম্মদ আবু হানিফ। আসামিপক্ষে ছিলেন আবু সাইদ। আদালত শুনানি শেষে ফারুক আহমেদ, মারুফ ও আইয়ুব গ্রেফতারের নির্দেশ দেয়। বাকি ২১ জনকে জামিনকে দেয়।