শিশুকে অপহরণের পর ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

কিশোরগঞ্জে চার বছরের শিশুকে অপহরণের পর ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে শাহ আলম (২২) নামে এক যুবককে মৃত্যুদণ্ড এবং একই সঙ্গে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত।

বুধবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক কিরণশংকর হালদার এ রায় দেন। আসামি শাহ আলম কিশোরগঞ্জ শহরের গাইটাল নয়াপাড়া এলাকার ফালু মিয়ার ছেলে। কাঠগড়ায় আসামির উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করা হয়।
 
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৭ মে রাতে কিশোরগঞ্জ শহরের গাইটাল এলাকার অটোরিকশা চালক নয়ন মিয়ার স্ত্রী মোছা. শামীমা তার দুই শিশু কন্যাকে নিয়ে নিজ ঘরে ঘুমিয়েছিলেন। কাজ শেষে রাতে বাসায় ফিরে নয়ন মিয়া তার ছোট মেয়ে আফরোজাকে (৪) বিছানায় দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন। পরে বাসা থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে গাইটাল বাগানবাড়ি এলাকার একটি মসজিদের পাশের গলিতে তাকে উলঙ্গ ও মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে ঘটনাস্থলের আশেপাশের এলাকা থেকে পাহারাদার ও স্থানীয় জনতার সহায়তায় পুলিশ ধর্ষণকারী শাহ আলমকে  আটক করে। শাহ আলম শিশুটিকে ঘুমন্ত অবস্থায় ঘর থেকে অহরণের পর ধর্ষণ ও গলা টিপে হত্যা করেছে বলে  আদালেতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।
 
এ ব্যাপারে নিহতের পিতা নয়ন মিয়া বাদি হয়ে কিশোরগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্তশেষে আসামি শাহ আলমের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে।