আমিরাতে তিন মাসের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবৈধ প্রবাসী কর্মীদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। আগামী ১ আগস্ট থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত তিন মাস জেল জরিমানা ছাড়াই অবৈধভাবে অবস্থানকারী অভিবাসীরা আমিরাত ছাড়তে পারবেন। ২০১২ সালের মধ্য আগস্ট থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশিদের জন্য প্রায় সব ধরণের ভিসা বন্ধ রয়েছে। ফলে দ্বিতীয় বৃহত্তম এ শ্রমবাজারটি মুখ থুবড়ে পড়েছে। গত ১৮ এপ্রিল প্রবাসী সচিব ড. নমিতা হালদারের সাথে দেশটি’র দ্বি-পাক্ষিক চুক্তি অনুযায়ী গৃহকর্মী (নারী), কুক, হাউজ ড্রাইভার, বাসা-বাড়ী’র কাজের লোকসহ ১৯ ক্যাটাগরির কর্মী নিয়োগের সুযোগ রয়েছে। এছাড়া আমিরাতে অবস্থানকে বৈধ করার সুযোগ পাবেন। আমিরাতের ‘ফেডারেল অথরিটি ফর আইডেন্টিটি অ্যান্ড সিটিজেনশিপ’ কর্তৃপক্ষ এতথ্য জানিয়েছে।
সংসদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সব অবৈধ অবস্থানকারীদের বৈধতা নিতে ‘বৈধতা নিশ্চিত করে নিজেকে সুরক্ষা করুন’ শিরোনামের একটি ক্যাম্পেইন চালু করতে যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।
সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশের দূতাবাসের একজন কর্মকর্তা জানান, সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা একটা ‘খুবই ভালো সংবাদ। যারা দীর্ঘদিন ধরে এদেশে অবস্থানের বৈধতা নেই তারা সুযোগটা নিয়ে ‘নো-এন্ট্রি স্ট্যাম্প’ বা ‘ব্যান’ ছাড়া দেশে চলে যেতে পারবেন। কেউ চাইলে তাদের অবস্থান বৈধ করে নিতে পারবেন।’ তিনি বলেন, ‘যারা অবৈধভাবে এখানে আছেন তারা সাধারণ ক্ষমার সুযোগ নিয়ে আমিরাত ত্যাগ করলে তা এদেশে আমাদের জন্য ইতিবাচক অবস্থান সৃষ্টি করবে। পরে নতুন করে তারা এদেশে আসার সুযোগ পাবেন।’ তিনি বলেন, ‘আমরা কাজ করে যাচ্ছি, এদেশে আমাদের ভিসা কড়াকড়ি অনেক শিথিল হয়ে এসেছে, গৃহকর্মী ও সিলেক্টেড কিছু ক্ষেত্রের ভিসা হচ্ছে, আমিরাত সরকারের উচ্চ পর্যায়ের একটি কমিটি আমাদের সরকারের সঙ্গে কাজ করছে।