ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নে ষড়যন্ত্র দেখছে ইন্ডাস্ট্রিঅল

July 29, 2018, 11:11 am নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

আগের চেয়ে কম মজুরি প্রস্তাবের মাধ্যমে পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়ন না করার ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে দাবি করেছে ইন্ডাস্ট্রিঅল বাংলাদেশ কাউন্সিলের (আইবিসি) একই সঙ্গে ন্যূনতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা করার আহ্বান জানিয়েছেন তারা। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন এই দাবি জানায় সংগঠনটি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আইবিসির কেন্দ্রীয় নেতা আমিরুল হক, নাজমা আক্তার, মো. কতুব উদ্দিন আহমেদ, মো. রুহুল আমিন, শহিদুল্যা বাদল এবং রাশেদুল আলম রাজু। এ সময় মজুরি ঘোষণার নামে মালিকরা তৈরি পোশাক খাতের ৪৫ লাখ শ্রমিকের সঙ্গে তামাশা করছে বলে মন্তব্য করেন শ্রমিক নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, দেশের সবচেয়ে বেশি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী তৈরি পোশাক খাতের শ্রমিকদের সঙ্গে মালিকরা মহা তামাশা করছে। তারা নিম্নতম মজুরি যে প্রস্তাব বোর্ডের কাছে দিয়েছে তা পাঁচ বছর আগের ঘোষিত মজুরির চেয়ে কম। এছাড়া শ্রমিক প্রতিনিধিরা যে প্রস্তার করেছে তাও বাস্তবমুখী নয়।
তাই পোশাক খাতের নিম্নতম মজুরি বিষয়ে মালিক এবং শ্রমিক প্রতিনিধিদের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন তারা। একই সঙ্গে বর্তমানে জীবনযাত্রার ব্যয়, মূল্যস্ফীতি, ব্যবসায়িক সামর্থ্য অনুযায়ী গার্মেন্ট শ্রমিকদের নিম্নতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা অবিলম্বে কার্যকর করার দাবি জানান শ্রমিক নেতারা।

ইন্ডাস্ট্রিঅলের সাবেক চেয়ারম্যান আমিরুল হক আমিন বলেন, সপ্তম গ্রেড অনুযায়ী নিম্নতম মজুরি যখন ৬৪০০ টাকা, তখন মালিক সংগঠন (বিজিএমইএ) তা থেকে আরো ৪০ টাকা কমিয়ে দিতে চাইছে। তারা সরকারকে মিসগাইড করে ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণ করতে দিচ্ছে না।

এর আগে শ্রমিকদের দাবির মুখে নতুন মজুরি বোর্ড গঠন করা হয়েছে। এতে পোশাক কারখানা মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ন্যূনতম মজুরি ৬ হাজার ৩৬০ টাকা প্রস্তাব করেন। মজুরি বোর্ডে শ্রমিকদের প্রতিনিধি প্রস্তাব করেছেন ১২ হাজার টাকা।

শ্রমিক প্রতিনিধি হিসেবে শামসুন্নাহারকে মনোনয়ন নিয়েও প্রশ্ন তোলেন ইন্ডাস্ট্রিঅল গ্লোবাল প্লাটফর্মের সদস্য নাজমা আক্তার। তিনি বলেন, সরকার আমাদের মনোনীত প্রতিনিধিকে না নিয়ে তাদের ইচ্ছামতো একজনকে নির্বাচিত করলেন। আমাদের কোনো দাবি তারা শুনলেন না।

সিপিডি পোশাক শ্রমিকদের সর্বনিম্ন মজুরি ৭ হাজার টাকার যে প্রস্তাব করেছে, তার সমালোচনা করে আমিরুল হক বলেন, সিপিডির এই ফর্মুলা অগ্রহণযোগ্য ও হঠকারিতার শামিল।

আমিরুল হক বলেন, পাঁচ বছর আগে মজুরি নির্ধারিত হয়েছিল, তার ৫ বছর পর এসে প্রতিমন্ত্রী বলছেন ৮৫ ভাগ কারখানায় মজুরি বাস্তবায়িত হয়েছে। এখন তার এ দাবি আমাদের কাছে অগ্রহণযোগ্য।

দাবি আদায়ে আগামী ৪ঠা আগস্ট শনিবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে ইন্ডাস্ট্রিঅল। পরে স্মারকলিপি প্রদান, অবস্থান কর্মসূচি ও সমাবেশের মতো কর্মসূচিও পালিত হতে পারে বলে জানান মহাসচিব সালাউদ্দিন স্বপন।