সিদ্ধিরগঞ্জে ট্রাকচাপায় পরিবহন শ্রমিক নিহত

August 6, 2018, 3:53 pm নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

 

   সিদ্ধিরগঞ্জে হাইওয়ে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে দুই ট্রাকের চাপায় প্রাণ গেল এক পরিবহন শ্রমিকের। নিহত শ্রমিকের নাম সোহাগ (২৫)। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার দুপুর ২টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল ট্রাক স্ট্যান্ডের সামনে। ঘটনার পর পর প্রতিবাদে পরিবহন শ্রমিক ও শিক্ষার্থীরা একত্রিত হয়ে সড়ক অবরোধ করে। এ সময় কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের বিচার দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে শ্রমিক ও শিক্ষার্থীরা। দুর্ঘটনার পর পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য নিহত পরিবহন শ্রমিকের লাশ নিয়ে যেতে চাইলে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী ও শ্রমিকরা কয়েক দফা বাধা দেয়।


পরে বিকাল সাড়ে ৪টায় জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম শিক্ষার্থী ও শ্রমিকদের সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থী ও শ্রমিকরা অবরোধ প্রত্যাহার করে এবং লাশ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়।


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শিমরাইল মোড় ট্রাক টার্মিনালের সামনে রোববার দুপুরে দুই ট্রাকের (ঢাকা মেট্রো-ট-১১-৯৭০২ ও ঢাকা মেট্রো-ট-১৪-২৬১০) চাপায় পিষ্ট হয়ে ট্রাকের হেলপার সোহাগ নিহত হয়। সে সিদ্ধিরগঞ্জের সাইলো গেট এলাকার জাহাঙ্গীরের ছেলে। দুপুর ২টায় ওই ঘটনার পর থেকে শ্রমিক ও শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে রাখে।


এ বিষয়ে কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাইউম জানান, মদনপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় এক নারী আহত হয়েছিল। কিন্তু তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার জন্য কোনো গাড়ি পাওয়া যাচ্ছিল না। একটি লেগুনাকে বুঝিয়ে রাজি করানো হলেও ছাত্র আন্দোলনের কারণে তারা যেতে রাজি হচ্ছিল না। তখন আমাদের একটি টিম এস্কট হিসেবে ওই লেগুনার সঙ্গে সিদ্ধিরগঞ্জে যাওয়ার সময় শিমরাইল মোড়ে সড়ক দুর্ঘটনা দেখতে পেয়ে থানা পুলিশকে অবহিত করে। তবে ঘটনার সময়ে কোনো পুলিশ সদস্য আশেপাশে ছিল না।


নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) মেহেদি ইমরান সিদ্দিকী জানান, দুর্ঘটনার পর পরিবহন শ্রমিক ও শিক্ষার্থীরা প্রথমে লাশ আটকিয়ে রেখেছিল এবং সড়কও অবরোধ করে রেখেছিল। পরে আমরা তাদের সঙ্গে কথা বলে সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয়। এখন পরিস্থিতি শান্ত আছে।