গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তি দাবি, ঢাবিতে বিক্ষোভ, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস পরীক্ষা বর্জন

August 9, 2018, 2:25 pm নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

 

   নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ ও সন্ত্রাসীদের হামলার প্রতিবাদ ও গ্রেপ্তারকৃত শিক্ষার্থীদের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। একই দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে বিক্ষোভ করেছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদে আয়োজিত মানববন্ধনে বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী অংশ নেয়। মানববন্ধনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারী স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ ও সন্ত্রাসীদের হামলা এবং হামলার প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে হামলা চালানোর প্রতিবাদ করে।

 

এ সময় তারা অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার এবং আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মুক্তির দাবি জানায়। শিক্ষার্থীরা বলেন, বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলনে প্রশাসনের ছত্রছায়ায় সন্ত্রাসীরা হামলা করেছে।
পুলিশ তাদের উপর গুলি, টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। আমরা হামলাকারীদের বিচার দাবি জানাই। মানববন্ধনে অংশ নেয়া ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের শিক্ষার্থী নাঈম ইসলাম বলেন, যৌক্তিক দাবিতে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করেছে। সরকারও তদের দাবিগুলোকে যৌক্তিক বলে জানিয়েছেন। অথচ সরকার দলীয় ছাত্র সংগঠন রড, লাঠি নিয়ে তাদের উপর আক্রমণ করেছে। গণমাধ্যম কর্মীরাও রেহাই পায়নি। আমরা হামলাকারীদের বিচার দাবি জানাই। তাদের দৃষ্টান্ত শাস্তি দেয়া হোক। রাশেদা রুমা নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা এখানে দাঁড়িয়েছি আমাদের ছোট ভাইবোন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধুদের ওপর পুলিশ ও সন্ত্রাসীদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে। নিরাপদ সড়ক একটি ন্যায্য দাবি। আন্দোলনে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করতে হবে। তাদের বিচারের আওতায় আনার জোর দাবি করছি।

 

এ সময় শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড বহন করতে দেখা যায়। যেগুলো নিরাপদ সড়ক ও আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদ করা হয়। দাবি করা হয় হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের। এদিকে নিরাপদ সড়ক আন্দোলন চলাকালীন গ্রেপ্তারকৃত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করেছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ক্লাসের পাশাপাশি বুধবার সকাল ১০টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব সেমিস্টারের ফাইনাল পরীক্ষা একযোগে শুরু হওয়ার কথা ছিল। ইংলিশ অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ বিভাগের ১২তম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী আদিত্য আহসান বারি বলেন, আমাদের ভাইরা রিমান্ডে, আমাদের ছোট ভাইবোনদের দাবি পূরণ হয়নি, হামলা হয়েছে আমাদের উপর। সব মিলিয়ে আমাদের মানসিক পরিস্থিতিও নেই পরীক্ষা দেয়ার, ক্লাস করার। গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তি না দেয়া পর্যন্ত আমরা ক্লাসে যাব না। এরই মধ্যে বুধবার সকালে গ্রীষ্মকালীন সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ওয়েবসাইটে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার ফয়জুল ইসলামের স্বাক্ষরিত নোটিশে বলা হয় ২০১৮ সালের গ্রীষ্মকালীন সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা স্থগিত করা হলো।

 

কোরবানির ঈদের পর পরীক্ষার নতুন সময়সূচি জানিয়ে দেয়া হবে। নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের মধ্যে পুলিশের ওপর হামলা ও ভাঙচুরের দুই মামলায় বেসরকারি ইস্ট ওয়েস্ট, নর্থ সাউথ, সাউথইস্ট ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২ ছাত্রকে মঙ্গলবার রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। এদের মধ্যে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের ৭ম সেমিস্টারের ছাত্র রিফাত রেজা আখলাক রয়েছেন। গত ২৯শে জুলাই ঢাকার বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর রাজধানী অচল করে টানা বিক্ষোভ দেখায় শিক্ষার্থীরা। এই আন্দোলনের নবম দিন সোমবার রাজধানীতে কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে পুলিশের কঠোর অবস্থানের মধ্যে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এই পরিস্থিতিতে ঢাকার ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় দুই দিন এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় একদিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।