জনপ্রশাসন সচিবসহ চারজনের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবসহ চারজনের প্রতি আদালত অবমাননার নোটিশ পাঠানো হয়েছে। বুধবার ডাকযোগে এ নোটিশ পাঠিয়েছেন আইনজীবী আবদুস সাত্তার পালোয়ান।

হাইকোর্টের দেয়া আদেশে পরিবহনপুল যথাযথভাবে পালন না করায় এ নোটিশ পাঠানো হয় বলে জানান আইনজীবী নিজে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, পরিবহনপুলের কমিশনার মুনশী শাহাবুদ্দীন আহমেদ, পরিবহনপুলের পরিচালক (সড়ক) মো. জয়নাল আবেদিন, কাউনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম নাজিয়া সুলতানার প্রতি এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

আইনজীবী আবদুস সাত্তার পালোয়ান জানান, আগামী সাতদিনের মধ্যে চালকদের চাকরিতে বহাল করার আদেশ বাস্তবায়ন না করলে তাদের বিরুদ্ধে আদালত অবমানার মামলা করা হবে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

তিনি সাংবাদিকদের জানান, দেশের বিভিন্ন উপজেলার নির্বাহী (ইউএনও) অফিসে মাস্টার রোলে (দৈনিক মজুরিতে কর্মরত চালক) নিয়োগ পাওয়া চালকদের চাকরি না দিয়ে পরিবহনপুল ২০১৪ সাল থেকে সুকৌশলে নতুন করে চালক নিয়োগ দেয়ার চেষ্টা করে আসছিল। যদিও সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সুপারিশ রয়েছে দৈনিক মজুরির ভিত্তিতে (মাস্টার রোলে) কর্মরত চালক বা কর্মচারীরা সংশ্লিষ্ট অফিসে নিয়োগের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন।

গত বছরের ১২ অক্টোবর দেশের বিভিন্ন ইউএনও অফিসে মাস্টার রোলে নিয়োগ পাওয়া ২৪ চালকের চাকরি স্থায়ী করার জন্য রিট করা হয়। রিটের শুনানি শেষে হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ তাদের চাকরি স্থায়ী করার জন্য রুল জারি করেন।

রুলে তাদের চাকরি কেন স্থায়ী করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়। চার সপ্তাহের মধ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব, পরিবহনপুলের কমিশনার, বিভিন্ন থানার নির্বাহী অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট নয়জনকে ওই রুলের জবাব দিতে বলা হয়। এরপর সংশ্লিষ্টরা আদালতে কোনো জবাব দেননি।

অভিযোগ রয়েছে, চালকদের কোনোরকম কাজ করার সুযোগ না দিয়ে উল্টো তাদের ওপর রিট তুলে নেয়ার জন্য চাপ দেয়া হচ্ছে। এরপর আবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে বিষয়টি অবহিত করে আবেদন করার পর ২৪ জনের চাকরিতে (স্থিতিবস্থা) বহাল রাখার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের এই আদেশে সাড়া না দিয়ে পরিবহনপুল কমিশনার নতুন চালক নিয়োগ দিয়ে রংপুর জেলার কাউনিয়া, পাবনার সাথিয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অফিসসহ কয়েকটি জায়গায় (দৈনিক মজুরিতে কর্মরত) কর্মরত চালকদের বাদ দিয়ে নতুন চালক পোস্টিং দেয়।

এছাড়া দেশের বিভিন্ন উপজেলার ইউএনওর বিরুদ্ধে একই ধরনের অভিযোগ পাওয়া যায়। ইতোপূর্বে আদালত অবমাননার নোটিশ পেয়ে কয়েকজন চালককে স্বপদে বহাল রাখলেও নোটিশ গ্রহিতাগণ প্রতিনিয়ত কাউকে না কাউকে চাকরিচ্যুত করছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে রিটকারীদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবদুস সাত্তার পালোয়ান আদালত অবমাননার এ নোটিশ পাঠান।