চুনারুঘাটে সৌদি পাঠানোর কথা বলে ধর্ষণের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

সৌদি আরব পাঠানোর জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়ার কথা বলে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে এক তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আর এ অভিযোগে লেদু মিয়া (৪৫) নামের এক দালালকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

ভুক্তভোগী তরুণীর বাড়ি বানিয়াচং উপজেলায়। লেদু মিয়া একই উপজেলার প্রতাপপুর গ্রামের বাসিন্দা। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা রবিবার রাতে চুনারুঘাট থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছেন। তাঁর ভাষ্য, ‘গত বৃহস্পতিবার মেয়েকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে নিয়ে যায় লেদু মিয়া। কিন্তু প্রশিক্ষণে না নিয়ে সে আমার মেয়েকে চুনারুঘাট উপজেলার লালচাঁন্দ চা বাগানের একটি ঘরে আটক রেখে ধর্ষণ করে।’

ওই তরুণীর ভাই অভিযোগ করেন, লেদু মিয়া দীর্ঘদিন ধরে চাকরির কথা বলে এলাকার মেয়েদের বিদেশে পাচার করছে। তার খপ্পরে পড়ে অনেক নারী বিদেশ গিয়ে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে লেদু একটি গাড়িতে করে ভুক্তভোগী তরুণীকে নিয়ে চুনারুঘাট উপজেলার ৫ নম্বর শানখলা ইউনিয়নের লালচাঁন্দ চা বাগানে নুর মিয়া নামের এক বন্ধুর বাড়িতে ওঠে। সেখানে লেদু মিয়া স্বামী-স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে অবস্থান করে। সে তরুণীকে জানায়, ওই বাড়িতে দুই দিন থাকতে হবে। এরপর লেদুর বস এসে তাঁকে নিয়ে যাবে। দুই দিন পর এলাকাবাসীর কাছে ধরা পড়ে লেদু। এরপর এলাকাবাসী দুজনকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

চুনারুঘাট থানার ওসি কে এম আজমিরুজ্জামান জানান, ভুক্তভোগীকে ডাক্তারি পরীক্ষা করানোর জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।