আজ থেকে নির্বাচনী ক্ষণ গণনা শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

আজ বুধবার থেকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ক্ষণ গণনা শুরু হয়েছে। সংবিধান অনুযায়ী আগামী বছরের ২৮ জানুয়ারির মধ্যে জাতীয় নির্বাচন সম্পন্ন করতে হবে। কেননা বর্তমান দশম জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশন বসেছিল ২০১৪ সালের ২৯ জানুয়ারি। সংবিধান অনুযায়ী সংসদের মেয়াদ শেষের ৯০ দিন পূর্বে এই ক্ষণ গণনা শুরু হবে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ১লা নভেম্বর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মধ্যকার সংলাপের দিকে নজর রাখছে ইসি। এদিকে, সংশোধিত গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) মন্ত্রিপরিষদে অনুমোদিত হওয়ায় বিধিমালায় বিভিন্ন ধারা-উপধারা সংযোজন ও নির্বাচন প্রস্তুতি নিয়ে ৩রা নভেম্বর তফসিলের আগে সবশেষ বৈঠকে বসছে ইসি।
 
এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনার মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, সংবিধান অনুযায়ী ৩১ অক্টোবর থেকে ক্ষণ গণনা শুরু হচ্ছে। কমিশনও প্রস্তুতি অনেকটা গুছিয়ে এনেছে। আগামী ৩ নভেম্বর কমিশন সভা আহ্বান করা হয়েছে। সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদে সংশোধিত আরপিও অনুমোদন পেয়েছে। শিগগিরি আইন আকারে পেয়ে যাবো। এ কারণে ওই সভায় বিভিন্ন বিধিমালায় কোন কোন ধারায় পরিবর্তন আনা হতে পারে তা নিয়ে আলোচনা হবে।
 
রাজনৈতিক সমঝোতাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিবেন জানিয়ে রফিকুল ইসলাম আরো বলেন, রাজনৈতিক দলগুলোর সংলাপে রাজনৈতিক সমঝোতা হলে ভালো। যদি সরকার ও বিরোধী পক্ষের মধ্যে কোন রাজনৈতিক সমঝোতা হয় তাহলে সংবিধান ও আইনের মধ্যে থেকে সর্বোচ্চ সমন্বয় করা হবে।
 
আজ থেকে নির্বাচনী ক্ষণ গণনা শুরু হলেও নির্বাচন কমিশনের কর্তৃত্ব স্থাপিত হবে তফসিল ঘোষণার পর থেকে ফলাফলের গেজেট প্রকাশ পর্যন্ত। সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা-২০০৮ অনুযায়ী নির্বাচনের পূর্ব সময় বলতে বোঝানো হয়েছে, জাতীয় সংসদের সাধারণ নির্বাচন কিংবা কোন শূন্য আসনে নির্বাচনের ক্ষেত্রে কমিশন কর্তৃক নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর দিন থেকে নির্বাচনের ফলাফল সরকারি গেজেটে তারিখ পর্যন্ত সময়কাল। নির্বাচন আয়োজনকারী সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান নির্বাচন কমিশনও (ইসি) তফসিল ঘোষণার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি নিয়ে ব্যস্ত রয়েছে। আগামী সপ্তাহের যে কোনদিন তফসিল ঘোষণা করতে পারে ইসি। ভোট হতে পারে ১৮ থেকে ২০ ডিসেম্বরের মধ্যে।