দুই জোটে সমঝোতার বাইরে দেড় শতাধিক প্রার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট এবং বিএনপি কেন্দ্রিক ঐক্যফ্রন্টের শরিকরা কাঙ্ক্ষিত আসন না পেয়ে অনেক আসনে আলাদাভাবে নির্বাচন করছে। মহাজোটের শরিক দল এরশাদের জাতীয় পার্টি জোটগতভাবে ২৯ আসন পেলেও আরো ১৩২ জন প্রার্থী লাঙ্গল প্রতীকে লড়ছেন। বিকল্পধারা বাংলাদেশ মহাজোটের ৩টি আসন পেলেও তাদের আরো ২০ জন প্রার্থী লড়ছেন কুলা প্রতীক নিয়ে। একইভাবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক ড. কামাল হোসেনের গণফোরাম ৭টি আসন পেলেও এর বাইরে আরো দুটি আসনে উদীয়মান সূর্য প্রতীক নিয়ে মাঠে রয়েছে প্রার্থীরা। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) তারা প্রতীকে একটি আসনে প্রার্থী দিয়েছে।
জানা গেছে, মহাজোটের বাইরে জাতীয় পার্টি থেকে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন ঢাকা-২ শাকিল আহমেদ শাকিল, ঢাকা-৭ তারেক আহমেদ আদেল, ঢাকা-৮ মো. ইউনুস আলী আকন্দ, ঢাকা-১০ মো. হেলাল উদ্দিন, ঢাকা-১১ এস এম ফয়সল চিশতী, ঢাকা-১২ নাসির উদ্দিন সরকার, ঢাকা-১৩ শফিকুল ইসলাম সেন্টু, ঢাকা-১৪ মোস্তাকুর রহমান, ঢাকা-১৫ মো. শামসুল হক, ঢাকা-১৯ কাজী আবুল কালাম আজাদ, ঢাকা-২০ খান মো. ই¯্রাফিল, গাজীপুর-৩ আফতাব উদ্দিন আহমেদ, গাজীপুর-৫ রাহেলা পারভীন শিশির, নরসিংদী-১ মো. শফিকুল ইসলাম, নরসিংদী-২ মো. আজম খান, নরসিংদী-৩ আলমগীর কবির, নরসিংদী-৪ মো. নেওয়াজ আলী ভূঁইয়া, নরসিংদী-৫ এম এ সাত্তার, নারায়ণগঞ্জ-১ আজম খান, টাঙ্গাইল-৪ সৈয়দ মোস্তাক হোসেন রতন, টাঙ্গাইল-৭ মো. জহিরুল ইসলাম জহির, কিশোরগঞ্জ-৬ নুরুল কাদের সোহেল, মানিকগঞ্জ-৩ জহিরুল আলম রুবেল, মুন্সীগঞ্জ-১ শেখ সিরাজুল ইসলাম, মুন্সীগঞ্জ-৩ গোলাম মোহাম্মদ রাজু, রাজবাড়ী-১ আক্তারুজ্জামান হাসান, রাজবাড়ী-২ এবিএম নুরুল ইসলাম, শরীয়তপুর-৩ মো. আবুল হাসান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনে কাজী মামুনুর রশীদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ তারেক এ আদেল, কুমিল্লা-১ মো. আবু জায়েদ আল মাহমুদ, কুমিল্লা-২ মো. আমির হোসেন, কুমিল্লা-৩ মো. আলমগীর হোসেন, কুমিল্লা-৪ মো. ইকবাল হোসেন রাজু, কুমিল্লা-৫ মো. তাজুল ইসলাম, কুমিল্লা-৭ মো. লুৎফর রেজা, কুমিল্লা-৮ নুরুল ইসলাম মিলন, কুমিল্লা-৯ এটিএম আলমগীর, কুমিল্লা-১১ খায়ের আহমেদ ভূঁইয়া, চাঁদপুর-১ এমদাদুল হক, চাঁদপুর-২ এমরান হোসেন মিয়া, চাঁদপুর-৪ মো. মাইনুল ইসলাম, নোয়াখালী-১ আবু নাসের ওয়াহেদ ফারুক, নোয়াখালী-২ হাসান মঞ্জুর, নোয়াখালী-৩ ফজলে এলাহী সোহাগ, নোয়াখালী-৪ মোবারক হোসেন, নোয়াখালী-৫ সাইফুল ইসলাম, নোয়াখালী-৬ নাসিম উদ্দিন মো. বায়জিদ, লক্ষ্মীপুর-১ আলমগীর হোসেন, লক্ষ্মীপুর-৪ আব্দুর রাজ্জাক চৌধুরী, চট্টগ্রাম-২ জহুরুল ইসলাম রেজা, চট্টগ্রাম-৪ দিদারুল কবির, চট্টগ্রাম-৮ ফাতেমা খুরশীদ সোমাইয়া, চট্টগ্রাম-১২ মো. নুরুচ্ছফা সরকার, চট্টগ্রাম-১৪ আবু জাফর মোহাম্মদ ওয়ালি উল্লাহ, খাগড়াছড়ি আসনে সোলায়মান আলম শেঠ, রাঙ্গামাটি আসনে এ এ কে পারভেজ তালুকদার, রংপুর-২ আসনে আসাদুজ্জামান চৌধুরী শাবলু, কুড়িগ্রাম-৩ আসনে আক্কাস আলী সরকার, কুড়িগ্রাম-৪ আসনে আশরাফ উদ দৌলা, গাইবান্ধা-৩ দিলারা খন্দকার শিল্পী, পঞ্চগড়-১ আসনে আবু সালেক, পঞ্চগড়-২ আসনে লুৎফর রহমান রিপন, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে হাফিজ উদ্দিন, দিনাজপুর-১ আসনে মো. শাহীনুর ইসলাম, দিনাজপুর-২ আসনে মো. জুলফিকার হোসেন, দিনাজপুর-৪ আসনে মো. মোনাজাত চৌধুরী, দিনাজপুর-৫ আসনে সোলায়মান সামী, দিনাজপুর-৬ আসনে মো. দেলোয়ার হোসেন, নীলফামারী-১ আসনে জাফর ইকবাল সিদ্দিকী, লালমনিরহাট-১ আসনে মো. খালেদ আখতার, রংপুর-৪ আসনে মোস্তফা সেলিম বেঙ্গল, রংপুর-৫ আসনে মো. ফখরুজ্জামান জাহাঙ্গীর, গাইবান্ধা-৪ আসনে কাজী মো. মশিউর রহমান, গাইবান্ধা-৫ আসনে এ এইচ এম গোলাম শহীদ রঞ্জু, শেরপুর-১ আসনে আলহাজ ইলিয়াস উদ্দিন, শেরপুর-৩ আসনে মো. আবু নাসের, জামালপুর-১ আব্দুস সাত্তার, জামালপুর-২ মোস্তফা আল মাহমুদ, জামালপুর-৩ অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল মঞ্জুর আহাদ হেলাল, ময়মনসিংহ-৫ মো. সালাউদ্দিন আহমেদ মুক্তি, ময়মনসিংহ-৬ ডা. কে আর ইসলাম, ময়মনসিংহ-৯ হাসনাত মাহমুদ তালহা, নেত্রকোনা-৩ মো. জসীম উদ্দিন ভূঁইয়া, জয়পুরহাট-১ আসনে আ স ম মোক্তাদির তিতাস, জয়পুরহাট-২ আসনে কাজী মো. আবুল কাশেম, বগুড়া-৪ আসনে হাজি নুরুল আমিন বাচ্চু, বগুড়া-৫ আসনে তাজ মোহাম্মদ শেখ, নওগাঁ-১ আসনে আকবর আলী কালু, নওগাঁ-২ আসনে মো. বদিউজ্জামান, নওগাঁ-৩ আসনে তোফাজ্জল হোসেন, নওগাঁ-৪ আসনে মো. এনামুল হক, রাজশাহী-২ আসনে খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান, রাজশাহী-৫ আসনে মো. আবুল হোসেন, রাজশাহী-৬ আসনে মো. ইকবাল হোসেন, নাটোর-১ আসনে মো. আবু তালহা, নাটোর-২ মো. মুজিবুর রহমান সেন্টু, নাটোর-৩ আনিসুর রহমান, সিরাজগঞ্জ-৩ মো. আলমগীর হোসেন, পাবনা-১ সরদার শাহজাহান, পাবনা-৫ মো. আব্দুল কাদের খান, খুলনা-১ আসনে সুনীল শুভ রায়, সাতক্ষীরা-১ আসনে সৈয়দ দিদার বখত্, সাতক্ষীরা-৪ আসনে আব্দুস সাত্তার মোড়ল, মেহেরপুর-১ আব্দুল হামিদ, মেহেরপুর-২ মো. কেতাব আলী, কুষ্টিয়া-১ মো. শাহারিয়ার জামিল, কুষ্টিয়া-৪ মো. আশরাফুল সোলাইমান, চুয়াডাঙ্গা-১ এড. মো. সোহরাব হোসেন, যশোর-২ এ বি এম সেলিম রেজা, যশোর-৩ মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, যশোর-৪ মো. জহুরুল হক, যশোর-৫ এম এ হালিম, যশোর-৬ মো. মাহাবুব আলম, মাগুরা-১ মো. হাসান সিরাজ, নড়াইল-১ মো. মিল্টন মোল্যা, নড়াইল-২ খন্দকার ফায়েকুজ্জামান, বাগেরহাট-৩ মো. সেকেন্দার আলী মনি, বাগেরহাট-৪ সোমনাথ দে, খুলনা-৪ হাদিউজ্জামান, খুলনা-৫ মো. শহীদ আলম, খুলনা-৬ শফিকুল ইসলাম মধু, বরগুনা-২ মিজানুর রহমান মল্লিক, পটুয়াখালী-৩ মো. সাইফুল ইসলাম, পটুয়াখালী-৪ আনোয়ার হোসেন, ভোলা-১ কেফায়েত উল্লাহ নজিব, ভোলা-৩ নুরুন্নবী সুমন, বরিশাল-২ সোহেল রানা, বরিশাল-৫ এ কে এম মর্তুজা আবেদীন, ঝালকাঠি-১ এম এ কুদ্দুস খান, ঝালকাঠি-২ এম এ কুদ্দুস খান, পিরোজপুর-১ মো. নজরুল ইসলাম, সুনামগঞ্জ-৫ নাজমুল হুদা, সিলেট-১ মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী, সিলেট-৩ মো. ওসমান আলী, সিলেট-৪ আহমেদ তাজ উদ্দিন তাজ রহমান, মৌলভীবাজার-২ এড. মাহাবুবুল আলম শামীম, হবিগঞ্জ-১ মো. আতিকুর রহমান, হবিগঞ্জ-২ শংকর পাল, হবিগঞ্জ-৩ মো. আতিকুর রহমান, সিলেট-৫ আসনে সেলিম উদ্দিন।
অন্যদিকে মহাজোটের শরিক বিকল্প ধারা বাংলাদেশের তিন প্রার্থী মেজর (অব.) আবদুল মান্নান লক্ষ্মীপুর-৪, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও যুক্তফ্রন্টের মুখপাত্র মাহী বদরুদ্দোজা চৌধুরী মুন্সীগঞ্জ-১, মৌলভীবাজার-২ আসনে প্রেসিডিয়াম সদস্য এম এম শাহীন নৌকা প্রতীক ছাড়াও বিকল্পধারার আরো ২০ প্রার্থী কুলা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন উন্মুক্ত আসনে। তারা হচ্ছেন বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য শমসের মবিন চৌধুরী বীরবিক্রম। প্রেসিডিয়াম সদস্য ও যুক্তফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়ক গোলাম সারোয়ার মিলন মানিকগঞ্জ-২। বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য এইচ এম গোলাম রেজা সাতক্ষীরা-৪ ও ঢাকা-১৫। বিএলডিপির চেয়ারম্যান এম নাজিমউদ্দিন আল আজাদ যশোর-৪। কক্সবাজার-২ আসনে মেজর (অব.) শাহেদ সরওয়ার, দিনাজপুর-২. মো. আশরাফুল ইসলাম, রংপুর-২ ইঞ্জি. হারুন-অর-রশিদ তালুকদার, কুড়িগ্রাম-২ আবুল বাশার, নাটোর-৩ মনজুর আলম হাসু, যশোর-৩ মারুফ হোসেন কাজল, ঢাকা-১৩ মো. মাহবুবুর রহমান, ঢাকা-১৭ এ কে এম সাইফুর রশিদ, ঢাকা-১৯ আইনুল হক, কুমিল্লা-১১ মাওলানা শামছুল হক জেহাদী, নোয়াখালী-১ ব্যারিস্টার ওমর ফারুক, রাজশাহী-৩ মো. মনিরুজ্জামান, চট্টগ্রাম-২ আসনে মজহারুল ইসলাম শাহ চৌধুরী, বরিশাল-৩ মো. এনায়েত কবির এবং টাঙ্গাইল-২ মুনিরুল ইসলাম।
ঢাকা-২ ও ৩ আসনে গণফোরামের প্রতীক উদীয়মান সূর্য নিয়ে লড়ছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা এবং ঢাকা-৭ আসনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মোস্তফা মহসীন মন্টু। তবে এই আসনে গণফেরামের প্রার্থী হিসেবে উদীয়মান সূর্য প্রতীক নিয়ে দলের মহাসচিবের বিরুদ্ধে লড়ছেন মোশারফ হোসেন নামে এক ব্যক্তি! ঢাকা-২০ (ধামরাই) আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) তারা প্রতীকের প্রার্থী এম এ মান্নান।