ঋণখেলাপি শাহাবুদ্দিনের দাঁত ও বুকের পর কোমরে ব্যথা

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম


ঋণখেলাপি ব্যবসায়ী শাহাবুদ্দিন জেল থেকে হাসপাতালে
দাঁতের ব্যথা নিয়ে জরুরি বিভাগে গিয়েছিলেন 
বুকের ব্যথা নিয়ে ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি হন 
এখন কোমরে বাতের ব্যথা নিয়ে ফিজিক্যাল মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন
দাঁতের ব্যথা নিয়ে গত ১৩ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে গিয়েছিলেন কারাবন্দী ঋণখেলাপি ব্যবসায়ী ও এসএ গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন আলম। তবে ওই দিন দাঁতের ব্যথার বদলে বুকের ব্যথা নিয়ে ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি হন তিনি। এখন আবার কোমরে বাতের ব্যথা নিয়ে একই মেডিকেলের ফিজিক্যাল মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। এই ওয়ার্ডের দুটি বেড তাঁর দখলে। চিকিৎসকদের শৌচাগারও ব্যবহার করছেন।

ঋণ জালিয়াতির মামলায় গত ১৭ অক্টোবর রাজধানীর গুলশানের একটি কফি শপ থেকে শাহাবুদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি। চট্টগ্রামের একটি থানায় ব্যাংক এশিয়ার করা ঋণখেলাপির মামলায় গ্রেপ্তার হন তিনি।

শাহাবুদ্দিন আলম ব্যবসার জন্য বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে বিভিন্ন সময়ে বিপুল পরিমাণ ঋণসুবিধা নিয়েছেন। তাঁর মোট ঋণের পরিমাণ ৩ হাজার ৬২২ কোটি ৪৮ লাখ ৪৫ হাজার ৫৯ টাকা। এর মধ্যে চট্টগ্রামের ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের সিডিএ অ্যাভিনিউ শাখা থেকে তাঁর নেওয়া ঋণের পরিমাণ ৭০৯ কোটি ২৭ লাখ ৩৫ হাজার টাকা।

রাজধানী থেকে সিআইডি পুলিশ গ্রেপ্তারের পর শাহাবুদ্দিন আলমকে চট্টগ্রামে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। গত ২৪ অক্টোবর তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ব্যাংক এশিয়ার মামলায় দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আদালত।