অঞ্চলভিত্তিক সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চান বাণিজ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কৃষি উৎপাদন নির্ভর পণ্যভিত্তিক যেসব সম্ভাবনা আছে সেগুলোকে কাজে লাগাতে চান নতুন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শুরুর আগের দিন মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরে মেলা প্রাঙ্গণে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি। 

টিপু মুনশি বলেন, “আমি সবে দায়িত্ব নিলাম। মাথায় কিছু আইডিয়া আছে। সেই আলোকে কাজ করে যাব। তার মধ্যে ময়মনসিংহে যেমন মাছ চাষ হয় সেই মাছ উৎপাদন বাড়ানো, সেই সাথে অত্র এলাকার জন্য হিমাগার তৈরি করা। রংপুর অঞ্চলে ধান, গম, আলুসহ যে সকল কৃষি পণ্য হয় সেসব নিয়ে আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে।” 

বুধবার রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মাসব্যাপী এই বাণিজ্য মেলা উদ্বোধন করবেন বলে জানান তিনি। 

এবারই প্রথম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার দর্শনার্থীদের জন্য অনলাইনে টিকেট কাটার সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

 সংবাদ সম্মেলনে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করতে চাইলেও যান্ত্রিক সমস্যার কারণে বাণিজ্যমন্ত্রী তা করতে পারেননি।  

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মেলায় ছোট বড় মিলিয়ে ৬০৫টি স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৫৯টি প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন, ১৯টি সাধারণ প্যাভিলিয়ন, ২৬টি বিদেশি প্যাভিলিয়ন, ছয়টি সংরক্ষিত প্যাভিলিয়ন, ৩২টি সাধারণ মিনি প্যাভিলিয়ন, ৩৬টি প্রিমিয়ার মিনি প্যাভিলিয়ন, নয়টি বিদেশি মিনি প্যাভিলিয়ন, ছয়টি সংরক্ষিত মিনি প্যাভিলিয়ন, ৬৮টি প্রিমিয়ার স্টল বিদেশি, ১৭টি প্রিমিয়ার স্টল, ২৯৫টি সাধারণ স্টল, ৩০টি ফুড স্টল এবং দুটি রেস্তোরাঁ। 

প্রতিবছরের মতো খাবারের মান নিয়ন্ত্রণে এবারও থাকবে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের একটি বিশেষ বুথ। মেলায় মা ও শিশুদের জন্য থাকবে দুটি কেন্দ্র। অন্যদিকে শিশুদের জন্য থাকবে দুটি শিশু পার্ক। 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবারের মেলায় ২২টি দেশের ৫২টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। দেশগুলো হল- থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্ক, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, নেপাল, চীন, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, সিঙ্গাপুর, মরিশাস, দক্ষিণ কোরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি, সুইজারল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও জাপান।