আপনার ই-মেইল পাসওয়ার্ড চুরি হয়নি তো?

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

এই সময়ের সবচেয়ে বড় হ্যাকিংয়ের ঘটনা প্রকাশ করেছে নিরাপত্তা গবেষণা প্রতিষ্ঠান ট্রয় হান্ট। ২ কোটি ১০ লাখ পাসওয়ার্ড আর ৭৭ কোটি ২৯ লাখ ৪ হাজার ৯৯১টি ই-মেল অ্যাড্রেস ফাঁস হওয়ার খবর দিয়েছে প্রতিষ্ঠান। জানিয়েছে, অন্তত ২৭০ কোটি গোপনীয় রেকর্ড হ্যাকার, স্প্যামারদের হাতে পৌঁছে গিয়েছে। কেবল তাদের হাতেই রয়েছে, ১১৬ কোটি দুই লাখ ৫৩ হাজার ২২৮টি ইউনিক ই-মেইল আইডি ও পাসওয়ার্ড ফাঁসের তথ্য। আর যাদের পাসওয়ার্ড খোয়া গেছে তাদের ভোগান্তিতে পড়তে হতে পারে বলে আশঙ্কা করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

 

তবে হ্যাকাররা ৭৭ কোটি ২৯ লাখ চার হাজার ৯৯১টি ইউনিক ই-মেইল হ্যাক করেছে। হ্যাক হওয়া তথ্যের মধ্যে ৮৭ জিবির ১২ হাজার ফাইল রয়েছে। যেখানে বিভিন্ন ডকুমেন্টর পরিমাণ ২৭০ কোটির বেশি রয়েছে বলে জানিয়েছে ট্রয় হান্ট।

সূত্রমতে, কালেকশন #ওয়ান-এর ডেটা স্টোরেজের ক্ষমতা ৮৭ জিবি বা গিগাবাইট। এর মধ্যে রয়েছে ১২ হাজার বিভিন্ন ধরনের ফাইল। সেই সব ডেটা ফাঁস হয়ে গিয়েছিল একটি ক্লাউড-বেজড শেয়ারিং ওয়েবসাইট মেগার কাছে। হান্ট জানিয়েছেন, এই মেগা আদতে হ্যাকার, স্প্যামারদের একটি সংগঠিত ফোরাম।

অজ্ঞাতসারে কিংবা বোকামির ফলে হয়তো আপনার ই-মেইল অ্যাড্রেস আর পাসওয়ার্ড হয়তো ইতিমধ্যে ফাঁস হয়ে গিয়ে থাকতে পারে। স্পর্শকাতর তথ্য চলে যেতে পারে বহু হ্যাকার, স্প্যামারের কাছে, বিশ্বের যেকোনও প্রান্তে। আপনার অজান্তে। হয়তো আলোর চেয়েও বেশি গতিবেগে পৌঁছে যেতে পারে ই-মেইলে সংরক্ষিত ক্রেডিট কার্ডের তথ্যও।

তাই আপনার অ্যাকউন্টটা হ্যাক হয়েছে কি না সে বিষয়টা নিজেই যাচাই করে নিতে পারেন। আপনার সুবিধার জন্য ইতিমধ্যে বিশষজ্ঞরা একটি ডেটাবেজও তৈরি করেছেন। খুলেছেন হ্যাভ আই বিন পন্ড নামে একটি ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইটে যেকোনও ই-মেইল অ্যাড্রেস আর পাসওয়ার্ড পাঠানো হলে, তারা পরীক্ষা নিরীক্ষা করে বলে দেয়, কোনও সময় কেউ সেই গোপন পাসওয়ার্ড জেনে ফেলে তা দিয়ে সেই ই-মেইল অ্যাড্রেস খুলেছিল কি না, কতবার খুলেছিল। কোথা থেকে হ্যাকার, স্প্যামাররা জেনে ফেলা গোপন পাসওয়ার্ড দিয়ে সেই ই-মেইল অ্যাড্রেসে ঢুকেছিল। কতটা তথ্যাদি তারা চুরি করেছিল?

তাহলে এবার যাচাই করে নেয়া যাক। শুরুতেই https://haveibeenpwned.com ওয়েব ঠিকানায় যান। এর পর সেখানে থাকা ডায়লগ বক্সে আপনার ই-মেইল ঠিকানাটি লিখুন। এর পর অনুসন্ধান আইকনে ক্লিক করুন।

অনুসন্ধান শেষে যদি- ‘ওহ-নো’ লেখা আসে তাহলে আপনি নিরাপদ। অবশ্য পুরোপুরি নিশ্চিত হতে তিনটি ধাপ পার হতে হবে। দ্বিতীয় ধাপে https://haveibeenpwned.com/Passwords লিংক থেকে পাসওয়ার্ডটি কতটা সুরক্ষিত তা জেনে নিন।

এ পর্যায়ে যদি আপনার পাসওয়ার্ড খুঁজে পাওয়া যায়নি বার্তা আসে তাহলেই স্বস্তি। অনুসন্ধান শেষে আপনাকে জানিয়ে দেবে- ‘গুড নিউজ, নো পনেজ ফাউন্ড।’