সামরিক মহড়ায় ভেনেজুয়েলার মাদুরো

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

পশ্চিমা দেশগুলোর চাপের মুখে থাকা ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো একটি সামরিক মহড়ায় উপস্থিত হয়ে তার প্রতি সেনাবাহিনীর আনুগত্যের প্রদর্শনী করেছেন।

রোববারের ওই মহড়ায় ভেনেজুয়ার সেনাবাহিনী রাশিয়ার তৈরি বিমান বিধ্বংসী কামান ও ট্যাঙ্কের গোলা নিক্ষেপ করে তাদের শক্তি প্রদর্শন করে, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

ভেনেজুয়েলার নির্বাচনকে কারচুপিপূর্ণ দাবি করে বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুইদো নিজেকে অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণার পর থেকে নিজের কর্তৃত্ব নিয়ে অপ্রত্যাশিত চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন মাদুরো। প্রভাবশালী পশ্চিমা দেশগুলোসহ তাদের মিত্ররা সমর্থন জানিয়েছে গুইদোর প্রতি, যিনি তার পক্ষে যোগ দেওয়া সৈন্যদের ক্ষমা করবেন বলে ঘোষণা করেছেন।  

রোববার সকালে প্রতিরক্ষামন্ত্রী ভ্লাদিমির পারদিনোকে পাশে নিয়ে সাঁজোয়া বহরের ঘাঁটি পারামাকাই দুর্গে সামরিক মহড়া প্রত্যক্ষ করেন মাদুরো।

মহড়ায় এক প্ল্যাটুন সৈন্য এক পশলা রকেটচালিত গ্রেনেড ছোড়ে, পাহাড়ের পাশে রাখা লক্ষ্যস্থলে মেশিনগান, বিমানবিধ্বংসী কামান ও ট্যাঙ্ক থেকে গোলা ছোড়ে।

মাদুরো বলেছেন, এই মহড়া তার প্রতি সামরিক বাহিনীর সমর্থন এবং ভেনেজুয়েলার সশস্ত্র বাহিনী দেশরক্ষায় প্রস্তুত তা বিশ্বের সামনে তুলে ধরেছে। 

গুইদো ট্রাম্পের কট্টরপন্থী উপদেষ্টাদের মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে একটি ক্যুয়ে অংশ নিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন মাদুরো।

“কেউ দুর্বল, কাপুরুষ, বিশ্বাসঘাতকদেরকে শ্রদ্ধা করে না। এই বিশ্ব সাহসী, নির্ভীক, শক্তিকে শ্রদ্ধা করে,” বলেছেন মাদুরো।

“এই পবিত্র মাটিতে কারও পা ফেলার চিন্তাও করা উচিত না। ভেনেজুয়েলা শান্তি চায়। শান্তির নিশ্চয়তা দিতে আমাদের প্রস্তুত হতে হবে,” বলেন তিনি।

ভেনেজুয়েলার সামরিক বাহিনী আগামী মাসের ১০ থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বড় ধরনের একটি সামরিক মহড়া করার পরিকল্পনা করছে। ওই মহড়ার পরিকল্পনাকে ‘ভেনেজুয়েলার ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ’ বলে মন্তব্য করেছেন মাদুরো।

শক্তি প্রদর্শনের পাশাপাশি ভেনেজুয়েলার সরকার ‘সবসময় বিশ্বস্ত, কখনোই বিশ্বাসঘাতক না’ শ্লোগানকে সামনে রেখে অনলাইনভিত্তিক প্রচার-প্রচারণাও শুরু করেছে।  

রোববার অস্ট্রেলিয়া ও ইসরায়েলও ৩৫ বছর বয়সী গুইদোকে ভেনেজুয়েলার ‘অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন ভেনেজুয়েলার সরকারবিরোধী আরেক নেতা কার্লোস আলফ্রেদো ভেকিওকে যুক্তরাষ্ট্রে দেশটির কূটনৈতিক প্রতিনিধি হিসেবে গ্রহণ করেছে।