কাশ্মীরে আবারো সংঘর্ষ : পুলওয়ামা হামলার দুই সন্দেহভাজন পরিকল্পনাকারীসহ ছয়জন নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

পুলওয়ামা হামলার মাত্র চারদিনের মাথায় ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে আবারো সংঘর্ষ দেখা দিয়েছে। গতকাল জঙ্গিদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে অন্তত আরো চার ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছে। পাশাপাশি এ সংঘর্ষে পুলওয়ামা বোমা হামলার দুজন সন্দেহভাজন ‘মাস্টরমাইন্ড’ও নিহত হয়েছে বলে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী জানিয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবারের হামলার ঘটনা নিয়ে পারমাণবিক শক্তিধর দুই প্রতিবেশী ভারত-পাকিস্তানের চরম উত্তেজনার মধ্যে গতকাল নয়াদিল্লিতে পাকিস্তানি রাষ্ট্রদূতকে ফিরিয়ে নিয়েছে ইসলামাবাদ। খবর এএফপি, রয়টার্স ও আল জাজিরা।

বৃহস্পতিবার ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভারতীয় আধা সামরিক বাহিনীর গাড়িবহরের ওপর আত্মঘাতী গাড়িবোমা হামলা চালানো হয়। এতে ৪০ জনের বেশি সেনা নিহত হয়েছে। গাড়িবহরটি আড়াই হাজার সেনাকে নিয়ে যাচ্ছিল। এ হামলাকে গত ৩০ বছরের মধ্যে মুসলমান অধ্যুষিত অঞ্চলটিতে ভারতীয় বাহিনীর ওপর সবচেয়ে ভয়াবহ হামলা বলে ধরা হচ্ছে।

পরে পাকিস্তানভিত্তিক সন্ত্রাসী সংগঠন জয়েশ-ই-মোহাম্মাদ হামলার দায় স্বীকার করে। এ ঘটনার পর চিরবৈরী দুই প্রতিবেশীর মধ্যে উত্তেজনা চরম আকার ধারণ করে। সন্ত্রাসী সংগঠনটিকে মদদ দেয়ার জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করেছে ভারত। অন্যদিকে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে পাকিস্তান।

রাজনৈতিক দলগুলোর পাশাপাশি ভারতের সাধারণ জনগণের মধ্যেও এ হামলা নিয়ে ব্যাপক ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। প্রতিবেশী দেশটির বিরুদ্ধে পাল্টা আঘাত হানার দাবি জোরালো হয়ে উঠছে। হামলার পর থেকে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করেছে ভারতীয়রা। গতকালও বেশকিছু বিক্ষোভ কর্মসূচির পরিকল্পনার কথা জানা গেছে। বিক্ষোভকারীরা রোববার পাকিস্তানি ও জয়েশ-ই-মোহাম্মাদের নেতাদের কুশপুত্তলিকা দাহ করে। এছাড়া বেশ কয়েকটি শহরে কাশ্মীরের নাগরিকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

আসন্ন নির্বাচন নিয়ে চাপের মুখে থাকা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও এ হামলার পাল্টা জবাব দেয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন। সীমান্তে জঙ্গিদের মোকাবেলার জন্য সশস্ত্র বাহিনীকে স্বাধীনতা দেয়া হয়েছে। এছাড়া এরই মধ্যে পাকিস্তানের ওপর অর্থনৈতিক ও আন্তর্জাতিক চাপ তৈরি করতে শুরু করেছে দেশটি।

গতকালের সংঘর্ষ নিয়ে এক বিবৃতিতে পুলিশ সংঘর্ষে নিহত দুই সন্দেহভাজন ‘মাস্টারমাইন্ড’ পাকিস্তানের নাগরিক এবং জয়েশ-ই-মোহাম্মাদের সদস্য বলে দাবি করেছে।

পুলিশের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জানান, পুলওয়ামার হামলার পর অভিযান শুরু করেছে সেনাবাহিনী। এ ধরনের একটি অভিযান চলাকালে জঙ্গিদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে চার সেনাসদস্য নিহত হয়েছে। এছাড়া আরো এক সেনাসদস্য ও এক বেসামরিক নাগরিক এতে গুরুতরভাবে আহত হয়েছে।

তিনি জানান, সৈন্যরা প্রথমে সতর্কতামূলক গুলি ছুড়লে জঙ্গিরাও পাল্টা গুলি ছুড়তে শুরু করে। কাশ্মীরের প্রধান শহর শ্রীনগরের ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গতকাল হিন্দু অধ্যুষিত জম্মুতে চতুর্থ দিনের মতো কারফিউ জারি রাখা হয়েছে। এছাড়া পুরো রাজ্যের মোবাইল ইন্টারনেট সেবা বন্ধ রাখা হয়েছে।

এদিকে পরিস্থিতি পর্যালোচনার জন্য নয়াদিল্লিতে পাকিস্তানি রাষ্ট্রদূতকে দেশে ফিরিয়ে নিয়েছে ইসলামাবাদ। গতকাল পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মাদ ফয়সাল এ তথ্য জানিয়েছেন। এক টুইটার বার্তায় ফয়সাল জানান, আলোচনার জন্য আমরা ভারতে আমাদের হাইকমিশনারকে ডেকে নিয়ে এসেছি। গতকাল সকালেই তিনি নয়াদিল্লি ত্যাগ করেছেন।

এর আগে পুলওয়ামা হামলার পর পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক পর্যালোচনার জন্য গত সপ্তাহেই দেশটি থেকে রাষ্ট্রদূতকে তলব করে ভারত।