বিজিএমইএকে ভবন ভাঙার বিষয়ে মুচলেকা দিতে নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

রাজধানীর হাতিরঝিলে অবস্থিত বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) ভবনটি সরানোর জন্য লিখিত মুচলেকা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

আজ মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন। 

আদালত বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষের ওপর অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘ভবন কত দিনের মধ্যে ভাঙবেন, সে বিষয়ে লিখিত মুচলেকা দিতে হবে। অন্যথায় সরানোর আবেদন গ্রহণ করা হবে না।’

এ সময় আদালত আরো বলেন, ‘বারবার সময় আবেদন করেন, এতে আমরাও লজ্জা পাই।’ 

বিজিএমইএ অবৈধভাবে তৈরি করা তাদের বহুতল ভবনটি ভাঙার জন্য আরো এক বছর সময় চেয়ে করা আবেদনের ওপর শুনানি শেষে আদেশের জন্য আজকের দিন ধার্য ছিল। তবে আদেশ দেওয়ার আগেই এই মুচলেকা দেওয়ার  নির্দেশ দেওয়া হলো।  

গত বছরের অক্টোবরে ভবন ভাঙার জন্য এক বছরের সময় চেয়ে আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদন করে বিজিএমইএ।

সময় চাওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়েছিল, রাজউক নতুন ভবনের জন্য জমি দিয়েছে, এখন সবকিছু প্রক্রিয়াধীন আছে। ভবন থেকে সবকিছু সরাতে অনেক সময়ের প্রয়োজন। তাই সময় চেয়ে আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদন করা হয়।

এর আগে গত বছরের ১২ মার্চ বিজিএমইএকে ছয় মাসের সময় দিয়েছিলেন আপিল বিভাগ।

২০১১ সালে হাইকোর্ট বিজিএমইএ ভবন ভাঙার বিষয়ে রায় দেন। এরপর ২০১৬ সালের ২ জুন আপিল বিভাগ তা বহাল রাখেন। কিন্তু এ সময়ের মধ্যে সরানোর কোনো চেষ্টা করেনি বিজিএমইএ। এরপর আদালত ছয় মাসের সময় দিয়ে আবেদনটির নিষ্পত্তি করে দেন।