পাকিস্তানে হামলার প্রমাণ প্রকাশ করা হবে না :ভারত

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের বালাকোটে চলতি সপ্তাহে বিমান হামলা চালিয়ে 'উলেস্নখযোগ্যসংখ্যক জঙ্গি হত্যার' দাবি করে ভারত। তবে ওই হামলায় হতাহতের ব্যাপারে কোনো প্রমাণ প্রকাশ করা হবে না বলে শনিবার ঘোষণা দিয়েছে ভারতের ক্ষমতাসীন সরকার। এ প্রসঙ্গে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এক সময়ের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ও বর্তমান অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি বলেন, কোনো দেশের নিরাপত্তা সংস্থাই অভিযানের প্রমাণ প্রকাশ করে না।

অথচ নিজেদের আকাশসীমা পেরিয়ে বালাকোটে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ঘাঁটিতে ভারতের ওই বিমান হামলায় হতাহতের ব্যাপারে পাকিস্তানের অস্বীকারের মুখে প্রমাণ আছে বলে দাবি করেছিল ভারতীয় বাহিনী। এবং তা প্রকাশ করা হবে বলেও জানিয়েছিল তারা। এছাড়া তাদের কাছে বিমান হামলার 'সিনথেটিক অ্যাপারচার রেডারের (এসএআর) ছবি রয়েছে বলেও জানানো হয়। ক্ষতিগ্রস্ত অংশকে পাকিস্তান যত তাড়াতাড়ি সম্ভব স্বাভাবিক করে তুলছে বলেও জানিয়েছে তারা। বিমান সেনারা যে মিশনে গিয়েছিল, সেই কাজে তারা সম্পূর্ণ সফল বলে জানানো হয়েছিল।

পাকিস্তানের ভেতরে ঢুকে ভারতের বিমানবাহিনীর এই হামলা নিয়ে প্রতিবেশী দেশ দুটির মাঝে চরম উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। এমনকি অভিযানে হতাহতের সংখ্যা নিয়েও দেখা দিয়েছে সন্দেহ। পাকিস্তান বলছে, ভারতের বিমান হামলায় কোনো হতাহত হয়নি। এদিকে ভারত বলছে, সরকার ওই অভিযানে হতাহতের ব্যাপারে কোনো ধরনের প্রমাণ প্রকাশ করবে না।

তবে পাক-ভারত উত্তেজনার পারদ নামতে শুরু করে শুক্রবার। এদিন ভারতীয় বিমান বাহিনীর আটক উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে ফেরত দেয় পাকিস্তান। পারমাণবিক অস্ত্রধারী দুই দেশের মাঝে আরেকটি যুদ্ধ ঠেকাতে বিশ্ব নেতাদের ব্যাপক প্রচেষ্টার পর শান্ত হয় পাক-ভারত পরিস্থিতি।

এদিকে, দুই দেশের কর্মকর্তারা বলছেন, পরিস্থিতি শান্ত হলেও এখনো শূন্যরেখায় উভয়পক্ষের গোলাগুলি অব্যাহত রয়েছে। গত ২৬ ফেব্রম্নয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে ঢুকে যুদ্ধবিমান থেকে হামলা চালায় ভারতীয় বিমানবাহিনী। দিলিস্ন বলছে, বালাকোটে জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোর ঘাঁটিতে অভিযান চালিয়েছে তারা। তবে এ ধরনের কোনো ঘাঁটি সেখানে নেই বলে দাবি করে ভারতের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ইসলামাবাদ। এমনকি স্থানীয়রাও একই তথ্য দিয়েছেন। প্রতিশোধ নিতে বুধবার পাকিস্তান বিমানবাহিনী আকাশসীমা লঙ্ঘন করে ভারতীয় সেনাবাহিনীর স্থাপনায় হামলা চালায়।

পাকিস্তান বলছে, ভারতীয় বোমা পাহাড়ি এলাকায় আঘাত হেনেছে। তবে এতে কেউ আহত হয়নি। ভারতের বিরোধীদলীয় বেশ কয়েকজন নেতা বালাকোটে ওই অভিযানের পক্ষে প্রমাণ প্রকাশ করার জন্য ক্ষমতাসীন মোদি সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বালাকোটের হামলার প্রমাণ চেয়েছেন মোদি সরকারের কাছে। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, 'পুলওয়ামায় জওয়ানদের ওপর ন্যাক্কারজনক হামলার প্রতিবাদে পাকিস্তানের ওপর প্রতিশোধ আমরা সবাই চাই। কিন্তু তা বিদেশি মিডিয়াগুলোর সন্দেহের পরিপ্রেক্ষিতে আমাদেরও এখন জানতে ইচ্ছে হচ্ছে, সত্যি সত্যিই বালাকোটে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হত্যা করা সম্ভব হয়েছিল কিনা।'