বৈধ হ্যাকিং করে কোটিপতি আর্জেন্টাইন যুবক

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

 


বৈধভাবে হ্যাকিং করে মাত্র ১৯ বছর বয়সে কোটিপতি হয়েছেন আর্জেন্টিনার কিশোর স্যান্টিয়াগো লোপেজ। ইন্টারনেটের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য ইদানীং বৈধ হ্যাকিং এর কদর বাড়ছে, আর  এই কাজ করেই কোটিপতি বনে গিয়েছেন এই তরুণ। তাকে নিয়ে ভিডিও প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে স্যান্টিয়াগো নিজেকে হ্যাকার পরিচয় দেন। এসময় তিনি তার বিশাল বাড়ি, গাড়ি এবং বাড়ির ভেতরে বিলাসবহুল সুইমিংপুল ও বিলিয়ার্ড কোর্ট দেখান। ১৯ বছর বয়সী এই মিলিয়নিয়ার যেকাজ করেন সে বিষয়ে অধিকাংশ মানুষের ধারণা নেই।

বস্তুত সান্টিয়াগো লোপেজ অনলাইনে বাগ বা ত্রুটি খুঁজে বের করেন। এর মাধ্যমে অনলাইনে মানুষের বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখেন।  এরই মধ্যে বিশ্বের সেরা কিছু ওয়েবসাইট থেকে ১ হাজার ৬০০ এরও বেশি ত্রুটি খুঁজে বের করেছেন তিনি।

নিজের ইচ্ছার কথা বলতে গিয়ে স্যান্টিয়াগো বলেন, আমি সিনেমায় যেমন দেখানো হয়, সেরকম হ্যাকারদের মতো হতে চাই না। লম্বা চুল, চোখে চশমা থাকার বদলে সাধারণ মানুষের মধ্যে হ্যাকার হিসেবে থাকতে চাই।

হ্যাকিং দক্ষতা কখনো অন্যায় কাজ করতে প্রলুব্ধ করেছে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে স্যান্টিয়াগো বলেন, সত্যি বলতে প্রথমদিকে আমি কিছুটা প্রলুব্ধ হয়েছিলাম। তবে অনলাইনে ত্রুটি খুঁজে কাজের সন্ধান পাওয়ার পদ্ধতি আমাকে বাঁচিয়েছে। এই কাজের বিশাল অর্থের অঙ্কটা তাকে প্রলুব্ধ করে বলেও জানান স্যান্টিয়াগো।

তিনি জানান, হ্যাকিং এবং অর্থ দুটোই আমি উপভোগ করি। কাজেই এটি দারুণ একটি সংযোগ বলে মনে হয় আমার।  প্রতিটি ত্রুটির জন্য কয়েক হাজার ডলার আয় করেন স্যান্টিয়াগো। তার আয় আর্জেন্টিনার মানুষের গড় আয়ের চল্লিশ গুণ বেশি।

বৈধ হ্যাকিং খুবই সম্ভাবনাময় খাত। বিভিন্ন সংস্থা সাইবার নিরাপত্তার জন্য হ্যাকারদের নিয়োগ দেয়। ইন্টারনেটের উন্নয়নে নিজের অবদান রয়েছে উল্লেখ করে স্যান্টিয়াগো বলেন, প্রতিটি ত্রুটি সরিয়ের নেয়ার সঙ্গে সঙ্গে ইন্টারনেট আগের চেয়ে বেশি নিরাপদ হচ্ছে।