চুক্তি ছাড়া ইইউ থেকে বের হতে চায় না ব্রিটেন

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের প্রস্তাবেও পরাজিত হয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। এর মধ্য দিয়ে স্পষ্ট হলো কোনো চুক্তি ছাড়া ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে বের হতে চায় না ব্রিটেন।


বুধবার পার্লামেন্টের ভোটাভুটিতে চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছেন সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপি। প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ৩১২ এমপি, পক্ষে দিয়েছেন ৩০৮ জন।

বিবিসি জানিয়েছে, এটি আইনিভাবে বাধ্যতামূলক কোনো সিদ্ধান্ত নয়। ব্রেক্সিট চান এমপিরা। তবে এখন ব্রেক্সিটের সময়সীমা বাড়ানো হবে কিনা সে ব্যাপারে ভোটাভুটির সুযোগ পাবেন এমপিরা।

এ ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হবে আজ বৃহস্পতিবার। যদি পাস হয় এবং ইইউ যদি এতে সম্মত হয় নির্ধারিত ২৯ মার্চেই ইইউ ত্যাগ করবে না ব্রিটেন।

সমঝোতার ভিত্তিতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সঙ্গে বিচ্ছেদ কার্যকর করতে তেরেসা মে যে চুক্তি সম্পাদন করেছেন, সেটি আবারও প্রত্যাখ্যাত হয়।

মঙ্গলবার এক ভোটাভুটিতে ৩৯১ জন আইনপ্রণেতা চুক্তিটির বিপক্ষে ভোট দেন। আর পক্ষে ভোট দেন ২৪২ জন। চুক্তিটি পাস না হওয়ায় প্রায় দুই বছর ধরে চলা সমঝোতার মাধ্যমে বিচ্ছেদ কার্যকরের সব চেষ্টাই আপাত ব্যর্থ হয়ে যায়।

ইইউ ছেড়ে গেলে ইইউভুক্ত দেশগুলোতে বসবাসরত ব্রিটিশ নাগরিকদের জন্য ব্রিটেন একটি সুবিধাজনক চুক্তি করতে চাইছে।

ইইউর দেশগুলোতে ব্রিটিশ ব্যবসায়ী ও কোম্পানিগুলো কী ধরনের সুবিধা পাবে- সেটিও একটি বিষয়। এখন তেরেসার সামনে কয়েকটি পথ খোলা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে দ্বিতীয় দফায় হেরে গেলেও সবচেয়ে সাদাসিধে উপায় হবে হয়তো হাউস অব কমন্সে তার খসড়া চুক্তিটি আরেক দফা ভোটাভুটিতে নিয়ে যাওয়া।

দুই দফা হারলেও তৃতীয় দফায় পেশ করা যাবে না এমন কোনো আইন নেই। নতুন ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে সরকার ফের আলোচনার প্রস্তাব দিতে পারে। তবে সেটি সময়সাপেক্ষ হবে।

এ ছাড়া এর প্রতিক্রিয়ায় ক্ষমতাসীন বা বিরোধী এমপিরা কি করবেন, সেটি সময়ই বলে দেবে। অন্যথায় পুনরায় গণভোটের আয়োজন করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিতে পারে।