মালয়েশিয়ায় বিবাহিত বিদেশিদের ভিসা বাতিল হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

মালয়েশিয়ায় বিবাহিত বিদেশিদের ভিসা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

 

কাজের ভিসায় এসে সে দেশের নাগরিকদের বিয়ে করলেই ভিসা বাতিল হবে বলে জানালেন ডেপুটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাতুক মোহাম্মদ আজিজ জামম্যান।

তিনি বলেন, বিয়ে করলে বিদেশি কর্মীদের অস্থায়ী কর্মসংস্থান ভিসা (পিএলকেএস) ঝুঁকি থাকে। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যদি আবেদন করে, বিশেষ বিবেচনায় ভিসা দেয়া যেতে পারে বলে জানালেন তিনি।

দাতুক মোহাম্মদ আজিজ জামম্যান বলেন, বিদেশি শ্রমিকদের জন্য (পিএলকেএস) এই দেশে বিয়ে করার অনুমতি দেয়নি। যদি আমরা একটি আবেদন পাই, তবে আমরা এটি বিবেচনা করতে পারি। কিন্তু অনেকেই আমাদের না জানিয়ে বিয়ে করে। যারা এ দেশে আইন লঙ্ঘন করেছে আমরা তাদের পারমিট বাতিল করেছি। বিবাহিতদের ক্ষেত্রেও একই আইন রয়েছে।

মালয়েশীয়দের কতজন বিদেশি কর্মী বিয়ে করেছেন এবং কতজন বিয়ের পর তাদের স্ত্রী-সন্তান রেখে দেশে ফিরে গেছেন, তার হিসাবও খতিয়ে দেখা হবে। গত ১৭ মার্চ সে দেশের সংসদে এমপি দাতুক সেরি ডা. ইসমাইল আবদ মুত্তালিব (বিএন-মারান) এর একটি সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান।

কতজন বিদেশি মালয়েশিয়ায় বিয়ে করেছেন, তার কোনো পরিসংখ্যান প্রদান করেনি মন্ত্রণালয়।

অন্য প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদেশি স্বামীদের অপব্যবহার প্রতিরোধে নাগরিকত্ব দেয়া সহজ করার কোনো পরিকল্পনা নেই।

মোহাম্মদ আজিজ বলেন, নির্দিষ্ট সময়ের জন্য স্থায়ী আবাসিক অবস্থাসহ সব প্রয়োজনীয়তা পূরণ করলেই এই ধরনের আবেদনগুলো বিবেচনা করা হবে।

তিনি বলেন, যেসব মালয়েশিয়ান তাদের বিদেশি স্বামীদের দেশে থাকতে চায় না। তাদের রাষ্ট্রীয় অভিবাসন কার্যালয়ে আবেদন করতে হবে যাতে তাদের স্বামী-স্ত্রীদের দীর্ঘমেয়াদি ভিসা বা পাস বাতিল করা যায়।

তিনি ব্যাখ্যা করেছিলেন, সামাজিক সফর বিদেশি নাগরিকদের স্থানীয় মালয়েশিয়ার সঙ্গে বিয়ে হওয়া পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় থাকার অনুমতি দেয়।

মোহাম্মদ আজিজ বলেন, যারা বিদেশিদের বিয়ে করেছেন তাদেরও দায়িত্ব রয়েছে। এই দেশে থাকাকালীন যেন তারা (স্বামী-স্ত্রী) দেশের আইন মেনে চলতে পারে।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

মালয়েশিয়ায় বিবাহিত বিদেশিদের ভিসা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

 

কাজের ভিসায় এসে সে দেশের নাগরিকদের বিয়ে করলেই ভিসা বাতিল হবে বলে জানালেন ডেপুটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাতুক মোহাম্মদ আজিজ জামম্যান।

তিনি বলেন, বিয়ে করলে বিদেশি কর্মীদের অস্থায়ী কর্মসংস্থান ভিসা (পিএলকেএস) ঝুঁকি থাকে। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যদি আবেদন করে, বিশেষ বিবেচনায় ভিসা দেয়া যেতে পারে বলে জানালেন তিনি।

দাতুক মোহাম্মদ আজিজ জামম্যান বলেন, বিদেশি শ্রমিকদের জন্য (পিএলকেএস) এই দেশে বিয়ে করার অনুমতি দেয়নি। যদি আমরা একটি আবেদন পাই, তবে আমরা এটি বিবেচনা করতে পারি। কিন্তু অনেকেই আমাদের না জানিয়ে বিয়ে করে। যারা এ দেশে আইন লঙ্ঘন করেছে আমরা তাদের পারমিট বাতিল করেছি। বিবাহিতদের ক্ষেত্রেও একই আইন রয়েছে।

মালয়েশীয়দের কতজন বিদেশি কর্মী বিয়ে করেছেন এবং কতজন বিয়ের পর তাদের স্ত্রী-সন্তান রেখে দেশে ফিরে গেছেন, তার হিসাবও খতিয়ে দেখা হবে। গত ১৭ মার্চ সে দেশের সংসদে এমপি দাতুক সেরি ডা. ইসমাইল আবদ মুত্তালিব (বিএন-মারান) এর একটি সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান।

কতজন বিদেশি মালয়েশিয়ায় বিয়ে করেছেন, তার কোনো পরিসংখ্যান প্রদান করেনি মন্ত্রণালয়।

অন্য প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদেশি স্বামীদের অপব্যবহার প্রতিরোধে নাগরিকত্ব দেয়া সহজ করার কোনো পরিকল্পনা নেই।

মোহাম্মদ আজিজ বলেন, নির্দিষ্ট সময়ের জন্য স্থায়ী আবাসিক অবস্থাসহ সব প্রয়োজনীয়তা পূরণ করলেই এই ধরনের আবেদনগুলো বিবেচনা করা হবে।

তিনি বলেন, যেসব মালয়েশিয়ান তাদের বিদেশি স্বামীদের দেশে থাকতে চায় না। তাদের রাষ্ট্রীয় অভিবাসন কার্যালয়ে আবেদন করতে হবে যাতে তাদের স্বামী-স্ত্রীদের দীর্ঘমেয়াদি ভিসা বা পাস বাতিল করা যায়।

তিনি ব্যাখ্যা করেছিলেন, সামাজিক সফর বিদেশি নাগরিকদের স্থানীয় মালয়েশিয়ার সঙ্গে বিয়ে হওয়া পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় থাকার অনুমতি দেয়।

মোহাম্মদ আজিজ বলেন, যারা বিদেশিদের বিয়ে করেছেন তাদেরও দায়িত্ব রয়েছে। এই দেশে থাকাকালীন যেন তারা (স্বামী-স্ত্রী) দেশের আইন মেনে চলতে পারে।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

মালয়েশিয়ায় বিবাহিত বিদেশিদের ভিসা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

 

কাজের ভিসায় এসে সে দেশের নাগরিকদের বিয়ে করলেই ভিসা বাতিল হবে বলে জানালেন ডেপুটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাতুক মোহাম্মদ আজিজ জামম্যান।

তিনি বলেন, বিয়ে করলে বিদেশি কর্মীদের অস্থায়ী কর্মসংস্থান ভিসা (পিএলকেএস) ঝুঁকি থাকে। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যদি আবেদন করে, বিশেষ বিবেচনায় ভিসা দেয়া যেতে পারে বলে জানালেন তিনি।

দাতুক মোহাম্মদ আজিজ জামম্যান বলেন, বিদেশি শ্রমিকদের জন্য (পিএলকেএস) এই দেশে বিয়ে করার অনুমতি দেয়নি। যদি আমরা একটি আবেদন পাই, তবে আমরা এটি বিবেচনা করতে পারি। কিন্তু অনেকেই আমাদের না জানিয়ে বিয়ে করে। যারা এ দেশে আইন লঙ্ঘন করেছে আমরা তাদের পারমিট বাতিল করেছি। বিবাহিতদের ক্ষেত্রেও একই আইন রয়েছে।

মালয়েশীয়দের কতজন বিদেশি কর্মী বিয়ে করেছেন এবং কতজন বিয়ের পর তাদের স্ত্রী-সন্তান রেখে দেশে ফিরে গেছেন, তার হিসাবও খতিয়ে দেখা হবে। গত ১৭ মার্চ সে দেশের সংসদে এমপি দাতুক সেরি ডা. ইসমাইল আবদ মুত্তালিব (বিএন-মারান) এর একটি সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান।

কতজন বিদেশি মালয়েশিয়ায় বিয়ে করেছেন, তার কোনো পরিসংখ্যান প্রদান করেনি মন্ত্রণালয়।

অন্য প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদেশি স্বামীদের অপব্যবহার প্রতিরোধে নাগরিকত্ব দেয়া সহজ করার কোনো পরিকল্পনা নেই।

মোহাম্মদ আজিজ বলেন, নির্দিষ্ট সময়ের জন্য স্থায়ী আবাসিক অবস্থাসহ সব প্রয়োজনীয়তা পূরণ করলেই এই ধরনের আবেদনগুলো বিবেচনা করা হবে।

তিনি বলেন, যেসব মালয়েশিয়ান তাদের বিদেশি স্বামীদের দেশে থাকতে চায় না। তাদের রাষ্ট্রীয় অভিবাসন কার্যালয়ে আবেদন করতে হবে যাতে তাদের স্বামী-স্ত্রীদের দীর্ঘমেয়াদি ভিসা বা পাস বাতিল করা যায়।

তিনি ব্যাখ্যা করেছিলেন, সামাজিক সফর বিদেশি নাগরিকদের স্থানীয় মালয়েশিয়ার সঙ্গে বিয়ে হওয়া পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় থাকার অনুমতি দেয়।

মোহাম্মদ আজিজ বলেন, যারা বিদেশিদের বিয়ে করেছেন তাদেরও দায়িত্ব রয়েছে। এই দেশে থাকাকালীন যেন তারা (স্বামী-স্ত্রী) দেশের আইন মেনে চলতে পারে।