ভারতীয় সেনাবাহিনীর ‘ইয়েতি’ নিয়ে নেটিজনদের বিদ্রুপ

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

ভারতের সেনাবাহিনী ইয়েতির পায়ের ছাপ পাওয়ার যে দাবি করেছে, তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে ব্যাপক হাস্যরস। এমনকি নানা ধরনেরর ব্যঙ্গ-বিদ্রুপও করা হচ্ছে।

 

টুইটারে ভারতীয় সেনাবাহিনীর ফলোয়ার আছে প্রায় ষাট লাখ। সেই টুইটারেই এক বার্তায় সোমবার সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, তারা 'পৌরাণিক জন্তু ইয়েতির রহস্যজনক পায়ের ছাপ আবিষ্কার করেছেন হিমালয় অঞ্চলে মাকালু বেজক্যাম্পে।

ইয়েতি, রহস্যময় হিসেবে বর্ণিত এমন একটি প্রাণী, দক্ষিণ এশিয়ার ফোকলোরে যার উল্লেখ প্রায়ই দেখা যায়।

ইয়েতির অস্তিত্বের বিষয়ে অবশ্য কোনো প্রমাণ নেই, কিন্তু যে মিথ প্রচলিত আছে ইয়েতিকে নিয়ে তা এ অঞ্চলে অত্যন্ত শক্তিশালী।

এখন ভারতীয় সেনাবাহিনী তাদের টুইটার অ্যাকাউন্টে সেই 'ইয়েতির পায়ের ছাপে'র ছবি শেয়ার করছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে বরফে বড় আকারের পায়ের ছাপ।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর পর্বতারোহী একটি দল এর আবিষ্কারক। যদিও কথিত পায়ের ছাপটি আবিষ্কৃত হয়েছে গত ৯ই এপ্রিল, কিন্তু তা প্রকাশ করা হয়েছে পরে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উঠে আসা নানা অবিশ্বাসের প্রতিক্রিয়ায় সেনাবাহিনী অবশ্য বলেছে, ইয়েতির বিষয়ে যে প্রমাণ পাওয়া গেছে সেটির ছবি তুলে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের দেয়া হয়েছিলো।

ইয়েতি, যা অনেকের কাছে তুষার মানব হিসেবেও পরিচিত, সেই দানব আকৃতির সৃষ্টি হিমালয়ের উপর স্তরে বাস করে বলে বিশ্বাস অনেকের।

ভারতীয় সেনাদের নিয়ে সামজিক মাধ্যমে মশকরা

ভারতীয় সেনাবাহিনীর দাবির পর এ নিয়ে ব্যাপক হাস্যরস শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ডেভেন সেইলর নামে একজন টুইট করে বলেছেন, ‘এমন হাস্যকর কিছু এভাবে প্রকাশের আগে ব্যাপক পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন ছিলো।’

হরিত নামের একজন লিখেছেন, ‘চরম হতাশাজনক বিষয় যে আর্মি এ ধরনের বোকামি মিথ বাস্তবে প্রচার করছে। তোমাদের কাছ থেকে ভালো কিছু আশা করি।’

অঙ্কিত পাণ্ডা লিখেছেন,‘হয় আমি জোকসটা মিস করেছি। না হলে ভারতীয় আর্মি ইয়েতির প্রমাণ হিসেবে যা বিশ্বাস করে তাই দাবি করেছে।’

কনিষ্ক সামোতা লিখেছেন, ‘আমি বড় পায়ের ছাপ চিহ্নিত করেছি সিঙ্গাপুরে গত রবিবার। কি কাকতালীয় ব্যাপার!’ সাথে তিনি দিয়েছেন একজনের পায়ের ছাপ ও জুতাসহ পায়ের ছবি।

আসিফি কারজিকার একটি বড় আকারের মুখোশ পড়া একটি ছবি দিয়ে বলেছেন, ‘সে ভোট দেয়ার জন্য শহরে প্রবেশ করেছে।’

আবার টুইটারে ভারতীয় বাহিনী যে পোস্ট দিয়েছে তার নিচে একজন ব্যঙ্গ করে লিখেছেন, ‘এখন সেখানে একটি মন্দির নির্মাণ করা উচিত।’

হারা নামের একজন লিখেছেন, ‘সম্ভবত তারা র‍্যাম্প মডেল ফ্যাশন শোতে হাঁটছিলো ... একজনের পা আরেকজনের সামনে।’