আমিরাতের বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, একাধিক ট্যাংকারে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আল-ফুজায়রা বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। একাধিক সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে, বিস্ফোরণের পর বন্দরে থাকা সাতটি তেল ট্যাংকারে আগুন ধরে গিয়েছে। তবে আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, বন্দরে নয়, বন্দরের নিকটে চারটি বাণিজ্যিক জাহাজে কে বা কারা নাশকতা চালিয়েছে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।

রবিবার সকালে ভয়াবহ এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। শুরুতে জাহাজে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার কথা অস্বীকার করলেও পর রবিবার রাতে একথা স্বীকার করে আমিরাত। তবে দেশটির একাধিক সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, সাতটি তেল ভর্তি ট্যাংকার সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গিয়েছে।

এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকের দাবি, বন্দরের ওপর দিয়ে লাগাতার আমেরিকা ও ফ্রান্সের বিমান ওড়াউড়ি করছে। যার ফলে এই আগুন লেগে থাকতে পারে। তবে ফুজায়রার স্থানীয় সরকার এই খবর অস্বীকার করেছে। তারা বলেছে, বন্দরের স্বাভাবিক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দুটি তেলবাহী জাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে সৌদি আরব। এর একটি জাহাজ যুক্তরাষ্ট্রের জন্য তেল বহন করছিল।

আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, বাণিজ্যিক জাহাজগুলোকে নাশকতামূলক তৎপরতার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা হয়েছে এসব জাহাজের কর্মীদের জীবন বিপন্ন করা হয়েছে। এসব কর্মকাণ্ডকে ভয়ানক কাজ হিসেবে বিবেচনা করছে আমিরাত।

মধ্যপ্রাচ্যের তেল নিয়ে হরমুজ প্রণালি হয়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় বিদেশি জাহাজ ও তেল ট্যাংকারগুলোকে ফুজাইরা বন্দরের পাশ দিয়ে যেতে হয়। ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে আশঙ্কা প্রকাশ করে বলা হয়েছে, এ ঘটনাকে তেহরানের ওপর সামরিক হামলার অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করতে পারে আমিরাতের মিত্র যুক্তরাষ্ট্র।

ইরানের সংবাদ মাধ্যম পার্সটুডে দাবি করেছে, বন্দরটির ওপর দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের বিমান উড্ডয়ন করছে। তবে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এ খবর অস্বীকার করেছে।