‘উচ্চমূল্যের পোশাকের বাজারে অবস্থান শক্ত করছে বাংলাদেশ’

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

বেসিক পোশাকের পাশাপাশি উচ্চমূল্যের পোশাকের বাজারেও বাংলাদেশ তার অবস্থান শক্ত করছে। ইউরোপের বাজারে ইতিমধ্যেই ডেনিম রপ্তানিতে বাংলাদেশ এক নম্বরে উঠে গেছে। এই মূল্য সংযোজনে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখছে ওয়াশিং খাত। শুক্রবার (১৯ জুলাই) রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনসন সিটিতে বাংলাদেশ গার্মেন্টস ওয়াশিং টেকনোলজিস্ট ফাউন্ডেশনের (বিজিডব্লিউটিএফ) ১০ বছর পূর্তি উৎসব ও বার্ষিক সাধারণ সভায় বক্তারা এ কথা বলেন।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, 'উচ্চমূল্যের পোশাক তৈরি করে রপ্তানি বাজার সুসংহত করার কোনো বিকল্প নেই। এক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ওয়াশিং খাতের। আশার কথা হচ্ছে, এখন আর এ খাতের জন্য বিদেশ থেকে টেকনোলজিস্ট আনার দরকার হচ্ছে না। দেশেই বিশ্বমানের টেকনোলজিস্ট রয়েছেন। তবে ভবিষ্যতের কথা ভেবে একটি ওয়াশিং ইনস্টিটিউট গড়ে তোলা এখন সময়ের দাবি। এ ব্যাপারে এফবিসিসিআই সার্বিক সহায়তা করবে।'

বিজিডব্লিউটিএফ-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মেহেদী হাসান বলেন, 'ইউরোপের বাজারে ডেনিম রফতানিতে আমরা এক নম্বরে উঠে এসেছি। অন্যান্য বাজারেও আমাদের অবস্থান শক্ত হচ্ছে। এই ডেনিমে ওয়াশিং খাতের অবদান প্রায় ৪৫ শতাংশ। ১০ ডলারের একটি বেসিক ডেনিমে যদি ৬ ডলার মূল্য সংযোজন হয়, তার ৪ ডলারই হয় ওয়াশিংয়ের মাধ্যমে। ওয়াশিং টেকলোজিস্টদের সংগঠিত করে তাদের আরও দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্যই এই সংগঠন কাজ করছে। ২০২০ সালের মধ্যে একটি ওয়াশিং ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ চলছে।'

ডেনিম সল্যুশনস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম সোহেল রানা বলেন, 'ওয়াশিং টেকনিশিয়ানদের কল্যাণে কাজ করছে বিজিডব্লিউটিএফ। আর এই টেকনিশিয়ানদের নতুন নতুন তথ্য ও কেমিক্যাল দিয়ে সাপোর্ট দিচ্ছে ডেনিম সল্যুশনস। বাংলাদেশে ডাইস্টার গ্লোবাল লন্ড্রি অক্সিলারিস-এর এজেন্ট কায়জার টেক্সটিল, টার্কির একমাত্র পরিবেশক ডেনিম সল্যুশনস। বাংলাদেশি ওয়াশিং টেকনিশিয়ানরাই এখন দেশের কারখানাগুলোতে সুনামের সঙ্গে কাজ করছে। এতে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হচ্ছে।'

ডেনিম সল্যুশনস লিমিটেডের স্পন্সরে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। ফাউন্ডেশনের সভাপতি জাকির হুসাইন লেলিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মেহেদী হাসান, কায়জার টেক্সটিল, টার্কির'র দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক ম্যানেজার উমুত দেমিরতাস, ডেনিম সল্যুশনস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম সোহেল রানা, আইটিইটির প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার শফিকুর রহমান, বিজিএমইএ'র পরিচালক মুহাম্মদ নাসির, বাংলাদেশ জুট রিসার্চ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মো. আসাদুজ্জামান প্রমুখ।