পর্তুগাল ইমিগ্রেশন হাই কমিশনারের মাল্টিকালচ্যারাল একাডেমি পরিদর্শন

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

পর্তুগাল ইমিগ্রেশন হাই কমিশনার পেদ্রো কালাদো পর্তুগাল মাল্টিকালচ্যারাল একাডেমি পরিদর্শন ও এক মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়েছেন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৫টায় প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ক্যাম্পাসে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশ কমিউনিটির সমস্যা, সম্ভাবনা ও বিভিন্ন দাবি সরাসরি উপস্থাপন করা হয়।

মঈন উদ্দিন আহমেদের সঞ্চালনায় শুরুতে একাডেমির চলমান বিভিন্ন কার্যক্রম ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরেন একাডেমির পর্তুগিজ ভাষা শিক্ষিকা সোফিয়া।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন লিসবন সিটি কাউন্সিলর রানা তসলিম উদ্দিন, হাই কমিশনের সহকারী ভাসকো মাল্টা, একাডেমির সাধারণ সম্পাদক রাসেল আহম্মেদ, কোষাধ্যক্ষ শওকত আজিজ, আইএসসিটিই বিশ্বিবদ্যালয়ের পিএইচডি গবেষক সিসিলিয়া, স্থানীয় এনজিও কর্মকর্তা পেদ্রোসহ আরও অনেকে।

আলোচনা ও মতবিনিময়ে অংশগ্রহণকারীদের নানা মতামত ও অভিজ্ঞতার কথা হাই কমিশনার অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গে শোনেন এবং কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেন। বিশেষ করে বাংলাদেশে পর্তুগিজ হাইকমিশন স্থাপনের ব্যাপারে উচ্চ পর্যায়ে সুপারিশের আশ্বাস প্রদান করেন তিনি।

হাই কমিশনার পেদ্রো কালাদো, তার বক্তব্যে একাডেমির বিভিন্ন কার্যক্রমের প্রশংসা করেন এবং অতিদ্রুত একাডেমিকে সরকারি স্বীকৃতি প্রদানের লক্ষ্যে যথাযথ সহযোগিতার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতি সম্রাট বলেন, আমাদের প্রতিষ্ঠানে তার আগমনে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত ও গর্বিত। আমাদের এই অসামান্য প্রয়াসে তাকে পেয়ে আমরা উজ্জীবিত। আমাদের এই অভিযাত্রায় তার পদার্পণে আশাকরি নতুন দিগন্তের সূচনা হবে। 

তিনি আরও আশা প্রকাশ করে বলেন, সামনের দিনগুলোতে হাই কমিশনার এবং তার প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতার মাধ্যমে আমরা আমাদের অভিষ্ঠ লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবো।

উল্লেখ্য, পর্তুগাল মাল্টিকালচ্যারাল একাডেমিতে পর্তুগিজ ভাষা শিক্ষা কোর্স ছাড়াও রয়েছে বাচ্চাদের বাংলা, ইংরেজি, পর্তুগিজ ও আরবি শিখার ব্যবস্থা, অভিবাসীদের দক্ষতা উন্নয়নে বিভিন্ন ধরনের প্রফেশনাল কোর্স, নারীদের বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, ফ্রি কম্পিউটার কোর্স ও অভিবাসন আইনজীবীর আইনি সহযোগিতা।