নাসাউ কলাসিয়াম ‘ফোবানা কনভেনশন’ সফল করতে প্রস্তুতি সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

নিউ ইয়র্কে একটা সফল ও ব্যয়বহুল ফোবানা কনভেনশন আয়োজনের জন্য দীর্ঘ প্রস্তুতির পথ পরিক্রমায় বিশাল কর্মী বাহিনীকে নিয়ে সম্মেলন প্রস্তুতি সভা করেছে আয়োজক সংগঠন ড্রামা সার্কল।

ড্রামা সার্কলের আয়োজনে এবার নিউ ইয়র্কের লং আইল্যান্ডের অত্যাধুনিক নাসাউ কলাসিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ফোবানার তেত্রিশতম আসর।

স্থানীয় সময় গত ২১ জুলাই সন্ধ্যায় উডসাইডে কুইন্স প্যালেসে আয়োজিত কর্মী সভায় সভাপতিত্ব করেন ড্রামা সার্কলের সাবেক সভাপতি ও ৩৩তম ফোবানা কনভেনশনের আহ্বায়ক নার্গিস আহমেদ। সভা সঞ্চালনে ছিলেন ড্রামা সার্কলের সভাপতি ও কনভেনশনের মেম্বার সেক্রেটারি আবির আলমগীর।

আগামী ৩১-৩১ অগাস্ট ও পহেলা সেপ্টেম্বর লং আইল্যান্ডে নাসাউ কলসিয়ামে ‘আওয়ার চিল্ড্রেন, আওয়ার প্রাইড’ স্লোগানে তিন দিনব্যাপী এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

কর্মী সম্মেলন সম্পর্কে কনভেনর নার্গিস আহমেদ বলেন, সম্মেলন সুন্দর এবং সার্থক করতে যে বিশাল কর্মীবাহিনী ও বিভিন্ন সাব কমিটি সমূহ কাজ করবে, সম্মেলন পরিচালনা এবং প্রস্তুতিতে তাদের কাজের বিস্তারিত ধারণা দিতেই আমরা এই প্রস্তুতি কর্মী সভা করেছি। একটি সার্থক সম্মেলন যেন আমরা পরিচালনা করতে পারি সুন্দরভাবে।

মেম্বার সেক্রেটারি আবীর আলমগীর ৩৩তম ফোবানা কনভেনশনের বিস্তারিত তুলে ধরে বলেন, তিনদিনের কনভেনশনে সমস্ত উত্তর আমেরিকা থেকে ১০ হাজার অভিবাসী বাংলাদেশির পদচারণায় মুখর হবে নাসাউ কলিসিয়াম। অংশগ্রহণ করবে ৮০টিরও অধিক সংগঠন। মূল মঞ্চে পারফর্ম করবে ৩৫টিরও বেশি সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠন। বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গ থেকে ২৭ জন সেলিব্রেটি শিল্পী যোগ দিবেন কনভেনশনে। জমকালো উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানেই অংশগ্রহণ করবে ১৪০ জন শিল্পী।

তিনি জানান, তিন দিনের কনভেনশনে ৮টি বিষয়ভিত্তিক সেমিনার, কাব্য জলসা, কবি সমাবেশ, মুক্তিযাদ্ধা সমাবেশ, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাইদের রি-ইউনিয়ন, ইয়ুথ কনফারেন্স, প্রাক্তন লিও রিইউনিয়, মিউজিক আইডল ও মিস ফোবানা কনটেস্ট হবে। এছাড়াও ৮টি দেশ থেকে আসা অভিবাসী বিজনেস পারসোনালিটিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে বিজনেস নেটওয়ার্কিং লাঞ্চ ইভেন্ট।

তিনি বলেন, নাসাউ কলিসিয়াম কতৃপক্ষের সাথে আমাদের ফুড ভেন্ডরদের নিয়ে গতকাল ২৩ জুলাই মঙ্গলবার মিটিং করেছি আমরা। নাসাউ কলিসিয়ামের মত বিশাল ভেন্যুতে বিরাট আকারের একটি কনভেনশন করতে গেলে অসাধারণ টিম ওয়ার্ক অত্যন্ত জরুরি। 

আবীর আলমগীর, এক্সপো সেন্টারের মাঝখানে থাকবে আরও একটি মুক্তমঞ্চ। এবারই প্রথম ফোবানা কনভেনশনে সংযোজন হচ্ছে দ্বিতীয় মঞ্চ। এক্সপো সেন্টারে থাকবে ৬০টিরও অধিক বেশি রকমারি পণ্যের স্টল। বিশাল আকারের ফুড কোর্টে নিউইয়র্ক এর প্রসিদ্ধ সব ফুড ভেন্ডাররা তাদের স্টল নিয়ে আসবেন।দেশী স্বাদের পাশাপাশি থাকবে মিডল ইস্টার্ন এবং আমেরিকান ফাস্ট ফুড সহ সব ধরণের খাবার।

সম্মেলনের তৃতীয় ও শেষ দিন ১ সেপ্টেম্বর নাসাউ কলিসিয়াম সংলগ্ন সম্মেলনের অফিসিয়াল হোটেল লং আইল্যান্ড ম্যারিয়টের লাইট হাউস হলে দুপুর ২টায় অনুষ্ঠিত হবে কবি সমাবেশ।

সভায় উত্তর আমেরিকার হাই স্কুল গ্র্যাজুয়েটদের জন্য স্কলারশিপ ঘোষণা করেছে এ সম্মেলনের স্কলারশিপ কমিটি। এককালিন এক হাজার ডলারের বৃত্তি পাবেন মনোনীতরা। আবেদনপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন চলতি মাসের ৩১ তারিখ। স্কলারশিপ কমিটির চেয়ারপারসন রেহান রেজার তত্ত্বাবধানে গত ৪টি ফোবানা কনভেনশন থেকে ২২ জন ছাত্রছাত্রীকে এ বৃত্তি দেওয়া হয়েছে।

৩২ বছরের ফোবানায় এবার প্রত্যাশার প্রতিফলন ঘটতে পারে বলে অনেকে মনে করছেন। কারণ এবার নতুন প্রজন্মকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। নিউ ইয়র্কের বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশ স্টুডেন্ট অ্যাসোসিয়েশনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সেমিনার-সিম্পোজিয়ামের।

এদিনের প্রস্তুতিসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আয়োজক কমিটির প্রেসিডেন্ট দেলওয়ার হোসেন, চিফ অ্যাডভাইজার মোহাম্মদ আমিনুল্লাহ, প্রধান সমন্বয়কারি জহির মাহমুদ, চেয়ারম্যান (রেজিস্ট্রেশন) পলাশ বি পিপলু, চেয়ারম্যান (হোটেল অ্যাকোমডেশন) মোহাম্মদ মহসিন, চেয়ারম্যান (কালচারাল) কান্তা আলমগীর ও ফোবানার নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান মীর চৌধুরী।

ফোবানা কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গোলাম ফারুক ভূইয়া, বেদারুল ইসলাম বাবলা, শরাফত হোসেন বাবু, দেলোয়ার হোসেন, এম এ সালাম, আব্দুল মুকিত চৌধুরী, আব্দুল হাই জিয়া, মামুনুর রশীদ, কবীর কিরন, মিশুক সেলিম, শেখ আল আমিন, জয়নাল আবেদীন, শাহাদৎ হোসেন, আব্দুস শহীদ ও সালাম আজম।