‘ব্লক ও ছিদ্রযুক্ত ইট’ উৎপাদন-ব্যবহার বাধ্যতামূলক: পরিবেশ ও বনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, ইটের বিকল্প হিসেবে সারাদেশে ক্রমান্বয়ে ‘ব্লক ও ছিদ্রযুক্ত ইটের’ উৎপাদন ও ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে।

 

তিনি বলেন, ইটভাটার দূষণ থেকে দেশের পরিবেশ সুরক্ষার জন্যই ‘ব্লক ও ছিদ্রযুক্ত ইটের’ ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে।

মো. শাহাব উদ্দিন সোমবার সচিবালয়ে পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সারা দেশে প্রায় সাড়ে ৭ হাজারের অধিক ইট ভাটায় বছরে প্রায় ২শ’ ৩০ কোটি ইট উৎপাদনের জন্য প্রায় ৩৩৫ কোটি ঘনফুট মাটি ব্যবহৃত হচ্ছে। কৃষি জমির উপরি ভাগের মাটি ব্যবহার করে ইট বানানোর কারণে কৃষি জমির উৎপাদনশীলতা হ্রাস পাচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘এ ভয়াবহ বিপর্যয় থেকে রক্ষা পেতে হলে আমাদেরকে ক্রমান্বয়ে পুরাতন পদ্ধতির ইটভাটা বন্ধ করে নতুন পদ্ধতিতে ইট উৎপাদনে যেতে হবে।’

নতুন পদ্ধতি আসতে সময়ের প্রয়োজন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এজন্য ২০১৯ থেকে ২০২৫ সালের মধ্যে সরকারি নির্মাণ, মেরামত ও সংস্কার কাজে ইটের ব্যবহার সম্পূর্ণ বন্ধ করার লক্ষ্যে টেন্ডার ডকুমেন্টসে ক্রমবর্ধমান হারে ব্লক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, পরিবেশ উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, পরিবেশ সচিব আবদুল্লাহ আল মোহসীন চৌধুরীসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিগণ এ সভায় উপস্থিত ছিলেন।