ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ ‘রাজহংস’ আসছে ১২ সেপ্টেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক | র‍্যাপিড পিআর নিউজ.কম

সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সংবলিত চতুর্থ বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ ‘রাজহংস’ আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হচ্ছে।

 

আমেরিকার সিয়াটল থেকে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩টা ৪৫ মিনিটের দিকে ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই ড্রিমলাইনার অবতরণ করার কথা রয়েছে। এদিকে গত ২৪ জুলাই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত করা হয়েছিল তৃতীয় বোয়িং ৭৮৭-৮ মডেলের ড্রিমলাইনার ‘গাঙচিল’ উড়োজাহাজটি। বাসস

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপ-মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার বুধবার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সংবলিত চতুর্থ বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজটি যুক্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে বিমান বহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা দাঁড়াবে ১৬টি। দেশে পৌঁছানোর পর ড্রিমলাইনারকে ওয়াটার ক্যানন স্যালুটের মাধ্যমে স্বাগত জানানো হবে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সূত্রে জানা গেছে, রাজহংস উড়োজাহাজ দেশে আনতে আগামী ৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করে ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, সিভিল এ্যাভিয়েশন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সহ একটি যৌর্থ প্রতিনিধি দল আমেরিকা যাবে।

প্রতিনিধি দলের সদস্যরা আগামী কয়েক দিনের মধ্যে সিয়াটলে বোয়িং কোম্পানির এভারেট ডেলিভারি ও অপারেশনস সেন্টারের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন। রাজহংসকে উড়িয়ে আনতে সিনিয়র পাইলট ও বিমানের চিফ অব ফ্লাইট সেফটি ক্যাপ্টেন শোয়েব চৌধুরীর নেতৃত্বে চারজন ওই পাইলট প্রতিনিধি দলের সাথে আমেরিকার সিয়াটলে যাচ্ছেন। রাজহংসে আসন সংখ্যা ২৭১টি। এর মধ্যে বিজনেস ক্লাস ২৪টি আর ২৪৭টি ইকোনমি ক্লাস।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরের জন্য চারটি ড্রিমলাইনারের নাম বাছাই করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এগুলো হলো- আকাশবীণা, হংসবলাকা, গাঙচিল ও রাজহংস।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২০০৮ সালে মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে ১০টি নতুন বিমান ক্রয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়। ইতোমধ্যে চারটি নতুন বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, দুটি নতুন বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও তিনটি বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ বিমানবহরে যুক্ত হয়েছে। চতুর্থ ও শেষ (১০তমটি) আসছে ১২ সেপ্টেম্বর।