spot_img
spot_img

শনিবার, ২১ মে ২০২২, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, সকাল ৯:৩২

সর্বশেষ
বাগমারা প্রেসক্লাবের সভাপতি ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় গ্রেফতার, দ্রুত মুক্তির দাবি মহাসড়কে দুর্ঘটনা রোধে অতিরিক্ত গতির গাড়ির বিরুদ্ধে তৎপর হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়কে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে হেলমেট পরিধানে উদ্বুদ্ধ করছে হাইওয়ে পুলিশ খুলনায় বিএনপির মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিচার্জ বাগেরহাটে র‌্যাবের ভেজাল বিরোধী অভিযান, তিন প্রতিষ্ঠানকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা ইসলামী ব্যাংক ও পার্কভিউ হসপিটাল-এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিঃ ও বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড-এর মধ্যে ‘মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রিপেইড মিটারের বিল প্রদান’ বিষয়ক চুক্তি স্বাক্ষর
প্রচ্ছদজাতীয়নারীর কর্মসংস্থান ও উন্নয়নে সহায়তা দিতে জাতিসংঘের প্রতি অনুরোধ

নারীর কর্মসংস্থান ও উন্নয়নে সহায়তা দিতে জাতিসংঘের প্রতি অনুরোধ

করোনা মহামারির কারণে বিশ্বব্যাপী নারীরা আর্থিক, সামাজিক ও স্বাস্থ্যগতভাবে বিভিন্ন ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। নারীরা চাকরি হারাচ্ছেন এবং নারী উদ্যোক্তাদের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেছে। যার ফলে তাদের জীবনযাত্রার মান নেমে গেছে এবং সহিংসতার শিকার হচ্ছেন। এ সংকটকালে ক্ষতিগ্রস্ত কর্মজীবী নারী, নারী উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীদের সহায়তায় এগিয়ে আসতে জাতিসংঘের এজেন্সিগুলো, আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ও উন্নয়ন অংশীদারদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

মঙ্গলবার ( ৯ মে) সচিবালয় থেকে ইউএন ওমেনের আঞ্চলিক কার্যালয়ের সাথে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের নয়টি দেশের নারী বিষয়ক মন্ত্রীদের সাথে অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল ভিডিও কনফারেন্সে তিনি এ অনুরোধ জানান।

কনফারেন্স সঞ্চালনা করেন ইউএন ওমেনের ( জাতিসংঘ লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতাবিষয়ক সংস্থা) ব্যাংকক আঞ্চলিক অফিসের পরিচালক মোহাম্মদ নাসিরী।

“টুওয়ার্ডস জেন্ডার রেস্পনসিভ কোভিড-১৯ রিকোভারি : এক্সপিরেয়েন্স ফ্রম এশিয়া অ্যান্ড প্যাসিফিক” বিষয়ক এই ভার্চুয়াল সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন জাতিসংঘের অ্যাসিস্টেন্ট সেক্রেটারি জেনারেল ও ইউএন ওমেনের নির্বাহী পরিচালক আনিতা ভাটিয়া।

প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা বলেন, কোভিড-১৯ বিশ্বব্যাপী যে স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি করেছে তা মোকাবিলায় সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে যে ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা কাজ করছেন তার ৭০ ভাগ নারী। বিশ্ব যখন মহাসংকটে তখন নারীরা ঘরে বসে নেই। বাংলাদেশেও স্বাস্থ্যখাতসহ বিভিন্ন চ্যালেঞ্জিং পেশায় উচ্চপদে নারীর দক্ষতা ও বলিষ্ট নেতৃত্ব প্রদানের মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্যে করোনা সংকটে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের নারী উদ্যোক্তাদের ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে আর্থিক সহায়তা, ঘরে বসে কাজ করা ও সরকারি-বেসরকারি সব নাগরিক সুবিধা পাওয়ার সুপারিশ তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, গবেষণা ও উন্নয়নের ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে বিশ্ব নেতৃবৃন্দকে একসাথে কাজ করে কোভিড-১৯ সংক্রামক ব্যাধিকে চিরতরে পৃথিবী থেকে দূর করতে হবে। গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা পজিটিভ শনাক্ত হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারী ও শিশু স্বাস্থ্যকে বিশেষভাবে অগ্রাধিকার দিয়ে দেশের মানুষের স্বাস্থ্য ও চিকিৎসার বিষয়ে দ্রুত কার্যকরী বিভিন্ন পদক্ষেপ নেন। সম্প্রতি ১০ হাজার ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থ্য সহকারী নিয়োগ দেয় সরকার।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, কোভিড-১৯ মহামারির কারণে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ বেকার হয়েছে। স্থবির হয়ে গেছে আন্তর্জাতিক ব্যবসা-বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ঋণাত্মক। এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে নারীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ ব্যাপকভাবে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কর্মসংস্থান ও অর্থনীতিকে গতিশীল করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক লাখ কোটি টাকার বেশি ১৯টি প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, রফতানিমুখী শিল্পের জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকার বিশেষ তহবিল, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকার ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল সুবিধা, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য তিন হাজার কোটি টাকার পুনঃঅর্থায়ন স্কিম, দুই হাজার কোটি টাকার নতুন কর্মসৃজন, যা থেকে নারী উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীরা সুবিধা পাবে।

‘এ ছাড়া প্রান্তিক আয়ের মানুষের জন্য দুই হাজার পাঁচশ কোটি টাকার বিনামূল্যে খাদ্য বিতরণ, ১২শ কোটি টাকার নগদ অর্থ বিতরণ, গৃহ নির্মাণ ও সামাজিক নিরাপত্তা প্রণোদনা প্যাকেজ, যার বেশিরভাগ উপকারভোগী নারী।’

ইউএন ওমেনের ব্যাংকক আঞ্চলিক অফিস আয়োজিত এই ভার্চুয়াল সভায় বিভিন্ন দেশের নারী ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী, সচিব এবং নারী উন্নয়ন বিভাগের কর্মকর্তারা অংশ নেন।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী রওশন আক্তারসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

সভায় জাতিসংঘের অ্যাসিস্টেন্ট সেক্রেটারি জেনারেল ও ইউএন ওমেনের নির্বাহী পরিচালক আনিতা ভাটিয়া বলেন, মোট জনসংখ্যার ৫০ শতাংশের বেশি নারী। নারী উন্নয়নে বিনিয়োগ বাড়াতে হবে। কোভিড ১৯ মোকাবিলায় নারীকে অগ্রাধিকার দেয়ার বিকল্প নেই। সভায় অংশগ্রহণকারী মন্ত্রী ও প্রতিনিধিরা তাদের দেশের নারী উন্নয়নের চিত্র ও কোভিড ১৯ মোকাবিলায় বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরেন।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত