spot_img
spot_img

মঙ্গলবার, ৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯, বিকাল ৩:৪২

সর্বশেষ
বাগমারা প্রেসক্লাবের সভাপতি ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় গ্রেফতার, দ্রুত মুক্তির দাবি মহাসড়কে দুর্ঘটনা রোধে অতিরিক্ত গতির গাড়ির বিরুদ্ধে তৎপর হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়কে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে হেলমেট পরিধানে উদ্বুদ্ধ করছে হাইওয়ে পুলিশ খুলনায় বিএনপির মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিচার্জ বাগেরহাটে র‌্যাবের ভেজাল বিরোধী অভিযান, তিন প্রতিষ্ঠানকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা ইসলামী ব্যাংক ও পার্কভিউ হসপিটাল-এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিঃ ও বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড-এর মধ্যে ‘মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রিপেইড মিটারের বিল প্রদান’ বিষয়ক চুক্তি স্বাক্ষর
প্রচ্ছদজাতীয়জনগণ সহযোগিতা করলে আমরা সফল হবো : আতিকুল

জনগণ সহযোগিতা করলে আমরা সফল হবো : আতিকুল

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, লকডাউনের বিষয়ে আমরা টেকনিক্যাল কমিটিকে বলেছি, নতুন যে জোনিং করা হচ্ছে সেটি কীভাবে আরও সুনির্দিষ্ট করা যায়, স্বাস্থ্য অধিদফতর সে বিষয়ে কাজ করছে। তবে এই মুহূর্তে আমাদের সবাইকে সচেতন হওয়া দরকার। জনগণ সহযোগিতা করলে আমরা সফল হবো।

বুধবার পরীক্ষামূলকভাবে লকডাউন ঘোষিত পূর্ব রাজাবাজার এলাকা পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, সাধারণ জনগণ যখন এগিয়ে আসবে, এলাকাবাসী যখন নিজেদের এলাকাকে নিরাপদ রাখতে সহায়তা করবে, তখনই আমরা সফল হবো। আমাদের কাউন্সিলর, সেনাবাহিনী, পুলিশ, সিটি করপোরেশন সবাই একযোগে কাজ করছি।

আমি বিশ্বাস করি, আমরা পরবর্তীতেও যেসব এলাকা লকডাউন করব, সেসব এলাকার জনগণ যদি আমাদের নির্দেশনা মেনে চলে, আমাদের সহায়তা করে তবে আমরা নিজেরা রক্ষা পাব, জনগণ রক্ষা পাবে, রক্ষা পাবে পুরো বাংলাদেশ। আমরা শুরু থেকেই নিয়মিত পূর্ব রাজাবাজার এলাকাটি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। আমরা খোঁজ রাখছি নিয়মিত।

এ সময় স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, আমরা পুরো দেশ লকডাউন করতে পারি না। এজন্য সংক্রমণের হার নিরূপণ করে এলাকাভিত্তিক লকডাউন করাটাই সবচেয়ে উপযোগী। এ বিষয়ে সিটি করপোরেশনের সাথে সরকারের বিভিন্ন সংস্থা একযোগে কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, ডিএনসিসির মেয়র সার্বক্ষণিক তদারকি করছেন, তার কাউন্সিলরগণও নিবেদিত প্রাণ। আমি নিজেও সার্বিক বিষয় নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করছি। মেয়রের নির্দেশে এখানে সার্বক্ষণিক একটি অ্যাম্বুলেন্স রাখা হয়েছে।রাজাবাজার আমাদের অন্যান্য নতুন লকডাউন এলাকার জন্য উদাহরণ হিসেবে কাজ করবে। এখানে আমরা মানবিক সহায়তার ব্যবস্থা রেখেছি।

যারা ক্রয় করতে পারছেন না, দরিদ্র মানুষ, তাদেরকে বিনামূল্যে খাদ্যদ্রব্য দেয়া হচ্ছে সরকারের পক্ষ থেকে। আর যারা স্বচ্ছল পরিবার তাদেরকে চাহিদা অনুযায়ী খাবার ক্রয় করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত