spot_img
spot_img

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ভোর ৫:৩০

প্রচ্ছদঅন্যান্যসীমানা পুনর্নির্ধারণ: ইসির প্রস্তাবের পক্ষে-বিপক্ষে দাবি-আপত্তি

সীমানা পুনর্নির্ধারণ: ইসির প্রস্তাবের পক্ষে-বিপক্ষে দাবি-আপত্তি

সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণের খসড়া তালিকার পক্ষে-বিপক্ষে অর্ধশতাধিক আবেদন জমা পড়েছে নির্বাচন কমিশনে (ইসি)। এতে কেউ কেউ ইসির প্রস্তাবিত সীমানায় আপত্তি জানিয়েছেন, কেউ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। আবার কেউ সীমানা নির্ধারণে নিজের প্রস্তাব তুলে ধরেছেন। ইসি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ইসির প্রস্তাবিত সীমানায় আপত্তি জানিয়েছেন সরকারদলীয় কয়েকজন মন্ত্রী-এমপি। তারা বলেছেন, সংসদ নির্বাচনের আগমুহূর্তে নতুন অন্তর্ভুক্ত এলাকার জনগণের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক তৈরি করা কঠিন হবে। আবার কেউ কেউ নিজেদের পছন্দমতো এলাকা নিয়ে সীমানা নির্ধারণেরও দাবি জানিয়েছেন। ২০০৮ সালের আগের সীমানা ফেরানোর দাবিও জানিয়েছেন অনেকে। অন্যদিকে প্রস্তাবিত সীমানায় সন্তোষ প্রকাশ করে ধন্যবাদ জানিয়ে ইসিকে চিঠি দিয়েছেন কয়েকজন। তারা জানিয়েছেন, স্থানীয় জনগণ নতুন সীমানায় খুশি। তারা খসড়া সীমানা বহাল রাখার দাবি জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘পহেলা এপ্রিল পর্যন্ত যেসব দাবি, আপত্তি, সুপারিশ ও মতামত জমা পড়বে তার ওপর শুনানি হবে। শুনানির পর কমিশন সংসদীয় আসনের সীমানা চূড়ান্ত করবে।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ইসির এক কর্মকর্তা জানান, খসড়া তালিকা প্রকাশের পরই ঢাকা থে‌কে নির্বা‌চিত সরকারের একজন মন্ত্রী ফোন করে তীব্র অসন্তোষ জানিয়েছেন। ঢাকার বাইরের অনেক এমপি সরাসরি নির্বাচন কমিশনে এসে তাদের ক্ষোভের কথা জানিয়েছেন। আবার অনেক এমপি তাদের সন্তুষ্টির কথাও জানিয়েছেন। অনেকেই কমিশনে গিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন ইসির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের।

গত ১৪ মার্চ ১৬টি জেলার ৩৮টি আসনের সীমানায় পরিবর্তন এনে খসড়া তালিকা প্রকাশ করে ইসি। এতে নীলফামারী ৩, ৪; রংপুর ১, ৩, ৪; কুড়িগ্রাম ৩, ৪; পাবনা ১, ২; মাগুরা ১, ২; খুলনা ৩, ৪; সাতক্ষীরা ৩, ৪; জামালপুর ৪, ৫; ঢাকা ২, ৩, ৭, ১৪, ১৯; নারায়ণগঞ্জ ৪, ৫; শরীয়তপুর ২, ৩; মৌলভীবাজার ২, ৪; ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৫, ৬; কুমিল্লা ১, ২, ৬, ১০; নোয়াখালী ৪, ৫ এবং চট্টগ্রাম ৭, ৮ আসনের সীমানায় পরিবর্তন আনার প্রাথমিক প্রস্তাব করা হয়েছে।

এরপর গত ২৭ মার্চ পর্যন্ত সীমানা সংক্রান্ত অর্ধশতাধিক আবেদন জমা পড়ে। এরমধ্যে ঢাকা, মাগুরা, সাতক্ষীরা, নরসিংদী, কুড়িগ্রাম, সিরাজগঞ্জ, যশোর, পাবনাসহ কয়েকটি জেলার আবেদন রয়েছে। ১ এপ্রিল পর্যন্ত আবেদনের সংখ্যা কমবেশি একশ হবে বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের। বিগত সময়ের তুলনায় এবার আবেদন সংখ্যা কম হবে বলেও মনে করছেন তারা। ইসির কর্মকর্তারা জানান, বিগত কমিশনের সময়ে ২০১৩ সালে ৩০টি জেলার ৭৫টি নির্বাচনি আসনের ওপর ৮৯৪টি দাবি, আপত্তি ও পরামর্শ জমা পড়েছিল। এরমধ্যে আপত্তির সংখ্যা ৩৭২টি ও পরামর্শ ৫২২টি ছিল।

জানা গেছে, মাগুরা-১ ও ২ আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণের বিরোধিতা করে এবং বর্তমান সীমানা বহাল রাখার দাবিতে অন্তত ৬টি প্রায় অভিন্ন আবেদন নির্বাচন কমিশনে জমা পড়েছে। আবেদনকারীর মধ্যে রয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বীরেন শিকদার, মাগুরা-১ আসনের এমপি মেজর জেনারেল (অব.) এটিএম আবদুল ওয়াহহাব, গোপালগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নাজমুল হাসান, বেরইল পলিতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খোন্দকার মহব্বত আলী, কুচিয়ামোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ও শত্রুজিত্পুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সনজিত্ কুমার বিশ্বাস। পৃথক আবেদনে ড. শ্রী বীরেন শিকদার ও মেজর জেনারেল (অব.) এটিএম আবদুল ওয়াহহাব বলেন, সদর উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন পরিষদ (শত্রুজিতপুর, গোপালগ্রাম, বেরইলপলিতা ও কুচিয়ামোড়া) মাগুরা-১ আসনের সীমানার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, যা বাস্তবসম্মত ও যুক্তিসঙ্গত নয়। বীরেন শিকদার উল্লেখ করেছেন, পাশাপাশি অবস্থিত দুই আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণের ফলে এখানকার ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্য অক্ষুণ্ন রাখা তথা দ্রুত ও সহজ যোগাযোগ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা দুরূহ হবে। সামগ্রিক রাজনৈতিক সংস্কৃতির ওপর বিরূপ প্রভাব পড়বে। আঞ্চলিক উন্নয়ন সমন্বয় ও রাজনৈতিক যোগাযোগ চরমভাবে বিঘ্নিত হবে। মেজর জেনারেল (অব.) এটিএম আবদুল ওয়াহহাব তার আবেদনে বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে নতুন করে এই জনগণের সঙ্গে যথাযথ নির্বাচনি যোগাযোগ গড়ে তোলা সম্ভব নয়। নির্বাচনি স্বার্থ তথা এই অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক আকাঙ্ক্ষা ও স্বরূপকে নতুন মেরুকরণের দিকে ঠেলে দেওয়া যুক্তিসঙ্গত হবে না।

ঢাকা-১৪ আসনের সঙ্গে কাউন্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদ যুক্ত করার দাবি জানিয়ে ইসিতে আবেদন করেছেন সংর‌ক্ষিত আস‌নের সংসদ সদস্য সাবিনা আক্তার তুহিনসহ স্থানীয় আরও দুই বাসিন্দা। প্রায় অভিন্ন তিন আবেদনে খসড়া তালিকায় থাকা ঢাকা-৩ আসনের সীমানা থেকে কাউন্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদটি বিচ্ছিন্ন করে ঢাকা-১৪ আসনে অন্তর্ভুক্তির দাবি জানানো হয়েছে। দাবির পক্ষে সাবিনা আক্তার তুহিন দূরত্ব‌কে য‌ু‌ক্তি  হি‌সে‌বে তু‌লে ধ‌রেন।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত