spot_img
spot_img

বৃহস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, সন্ধ্যা ৬:৪৯

প্রচ্ছদঅন্যান্যটুইস্টার প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা করতে চায় বিসিএসআইআর

টুইস্টার প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা করতে চায় বিসিএসআইআর

বাংলাদেশের রাস্তাঘাট, নদীর তীর, বিভিন্ন বাঁধ বা রানওয়ে দীর্ঘস্থায়ী এবং টেসকই নির্মাণের লক্ষ্যে জাপানের জেডিসি কর্পোরেশনের উদ্ভাবিত টুইস্টার প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা করবে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (বিসিএসআইআর)। একই সঙ্গে আর্সেনিক দূরীকরণে জাপানী প্রযুক্তি নিয়েও যৌথ গবেষণা করবে দুই দেশ।

এই লক্ষ্যে বুধবার বিসিএসআইআর সেমিনার কক্ষে দুই দেশের গবেষকদের মধ্যে একটি এমওইউ চুক্তি ও সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। বিসিএসআইআর চেয়ারম্যান মোঃ ফারুক আহমেদ-এর সভাপতিত্বে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন জেডিসি কর্পোরেশনের প্রেসিডেন্ট তাকেও আসাকুরা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিএসআইআর সিনিয়র বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম ভূইয়া। অনুষ্ঠানে প্রযুক্তি ব্যবহারের নানা ভিডিও প্রেজেন্টেশন দেখানো হয়।

জাপানী বিশেষজ্ঞরা বলেন, টুইস্টার প্রযুক্তি ব্যবহার করে খুবই অল্প সময়ে কম খরচে যে কোন ধরনের মাটির উন্নয়ন করে দেশের গ্রামীণ ও শহরের রাস্তাঘাট দীর্ঘস্থায়ী ও মজবুতভাবে নির্মাণ করা সম্ভব। একই সঙ্গে এই প্রযুক্তির ব্যবহারে বন্যায় শহর সংরক্ষণের বাঁধ নির্মাণ, নদীর তীর, বিমানবন্দরের রানওয়ে নির্মাণ, মেরিন ড্রাইভ নির্মাণ, রেলওয়েসহ অন্যান্য জাতীয় সড়ক মহাসড়ক মজবুতভাবে নির্মাণ সম্ভব। এছাড়াও আর্সেনিক দূরীকরণের ক্ষেত্রে জাপানী এক ধরনের রেজিন ব্যবহার করে ভূ-গর্ভস্থ আর্সেনিক যুক্ত পানিকে সম্পূর্ণ আর্সেনিক মুক্ত করা সম্ভব।

জাপানের জেডিসি কর্পোরেশনের প্রেসিডেন্ট তাকেও আসাকুরা বলেন, আমাদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো বাংলাদেশকে সহযোগিতা করা। এই প্রযুক্তি দুটির মাধ্যমে বাংলাদেশের জনগণ উপকৃত হবে। এই প্রযুক্তি দুটি বাংলাদেশের মৃত্তিকা ও পানির গুণাগুণের উপযোগী। আমরা এই প্রযুক্তির আরও উন্নয়নে বিসিএসআইআর এর সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী। তিনি বলেন, বাংলাদেশ জাপান দুই দেশের খুবই ভাল সম্পর্ক। আশা করছি এই বিষয়ে আমরা একে অপরের সহযোগিতা পাব।

বিসিএসআইআর চেয়ারম্যান মোঃ ফারুক আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের উন্নতি হচ্ছে। আমাদের বৈজ্ঞানিক উপায়ে উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার করে স্বল্প সম্পদের ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। আমাদের বাজেটের বড় অংশই ব্যয় হয় সড়ক বাঁধ নির্মাণে। বিভিন্ন এলাকায় বাঁধ ভেঙ্গে বন্যার পানি ঢোকে। এই বিষয়ে উন্নতিতে কি করণীয় আমরা সব সময় ভাবতাম। এছাড়াও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে অনেক এলাকায় আর্সেনিকে আক্রান্ত। আমাদের মনে হয়েছে এই প্রযুক্তিতে যদি আমরা যুক্ত হতে পারি তাহলে বিভিন্ন অঞ্চলের রাস্তাঘাট আরও টেকসই করা যাবে সেই সঙ্গে আর্সেনিকমুক্ত করা সহজ হবে। বিসিএসআইআর চেয়ারম্যান বলেন, জেডিসি প্রথমে আমাদের দেশে পাইলট প্রকল্প হিসেবে দুটি প্রকল্প চালু করবেন সরেজমিনে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহের জন্য।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত