spot_img
spot_img

সোমবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, রাত ১১:৩৫

প্রচ্ছদঅন্যান্যনর্থ বেঙ্গল সুগার মিল আধুনিকায়নে ৩২৫ কোটি টাকার প্রকল্প

নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল আধুনিকায়নে ৩২৫ কোটি টাকার প্রকল্প

দেশের চিনিকলগুলো প্রতি বছরই কোটি কোটি টাকা লোকসান গোনায় রুগ্ন শিল্প হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে ভারি এ শিল্প। যদিও তা লাভজনক করতে ২০১৪ সালে এ শিল্পের বহুমুখীকরণের পদক্ষেপ নেয় সরকার; যার ধারাবাহিকতায়, নাটোরের নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলকে আধুনিক করতে হাতে নেয়া হয়েছে ৫টি প্রকল্প। বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৩২৫ কোটি টাকা। প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন করা গেলে কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি লাভের মুখ দেখতে পারে নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল।

নাটোরের নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলকে আধুনিক বহুমুখী শিল্পে পরিণত করতে হাতে নেয়া হয়েছে ৫টি প্রকল্প; যাতে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৩২৫ কোটি টাকা। সুগার মিলের স্টিম জেনারেট অর্থাৎ গরম পানি থেকে উৎপাদিত হবে ১৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত। এতে মিলের চাহিদা মিটিয়ে বিদ্যুত সরবরাহ হবে জাতীয় গ্রিডে। অপরিশোধিত চিনি আমদানি করে পরিশোধিত চিনি উৎপাদন, মোলাসেস থেকে রফতানি যোগ্য ইথানল তৈরি, ভ্যাগাস থেকে তৈরি হবে বায়োগ্যাস ও জৈবসার। এসব সার আখ ও সুগার বিট উৎপাদনে ব্যবহার করা হবে।

ধারণা করা হচ্ছে, এসব প্রকল্পে বাড়বে সরকারের রাজস্ব। প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে ভারতের সোসাম সুগার কনসালট্যান্ট ফার্মকে নিয়োগ দিয়েছে চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশন। ‘প্রজেক্ট ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের’ কাজ ও যন্ত্রপাতি ক্রয়ের জন্য আহ্বান করা হয়েছে আন্তর্জাতিক দরপত্র। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করা গেলে নাটোর নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল হবে লাভজনক প্রতিষ্ঠান। তৈরি হবে নতুন কর্মসংস্থান।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত