spot_img
spot_img

শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, রাত ১০:২১

প্রচ্ছদঅন্যান্যব্রহ্মপুত্র নদের গতিপথ পাল্টে দিয়েছে চীন, পানি সংকটে ভারত

ব্রহ্মপুত্র নদের গতিপথ পাল্টে দিয়েছে চীন, পানি সংকটে ভারত

ব্রহ্মপুত্র নদের গতিপথ পালটে দিয়েছে চীন। এখনই পদক্ষেপ না করলে আমাদের (ভারতের) ভবিষ্যৎ অন্ধকার। এই বিষয়ে দ্রুত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে হস্তক্ষেপ নিতে হবে। বললেন আসামের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ। এ খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন।

সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে দেয়া এক বিবৃতিতে গগৈ বলেন, ব্রহ্মপুত্রের বুকে বিশাল বাঁধ বানিয়েছে চীন। তার মাধ্যমে পানির গতিপথ পাল্টে দিয়েছে তারা। এর ফলে আসামসহ একাধিক রাজ্যে প্রবল পানি সংকট দেখা দেবে। এই বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নিন প্রধানমন্ত্রী, না হলে আমাদের ভবিষ্যৎ অন্ধকারের দিকেই যাবে।

খবরে বলা হয়, উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির প্রাণ ব্রহ্মপুত্র নদ। বিশেষ করে কৃষিনির্ভর আসাম সেচের জন্য ওই নদের পানির উপর নির্ভরশীল। সাবেক এ মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজ্য জুড়ে।

চীন ব্রহ্মপুত্রের নাম সাংপো। ওই নদের উৎস তিব্বতে। সেখান থেকে নিম্নমুখী হয়ে ভারত ও বাংলাদেশে প্রবাহিত হয়ে বঙ্গোপসাগরে পড়েছে ব্রহ্মপুত্র। ভারতের উত্তর-পূর্বের রাজ্য, বিশেষ করে আসমের জীবনরেখা ওই নদ। এর জন্যই বিস্তীর্ণ অঞ্চলে কৃষিকার্য সম্ভব হয়। তবে মাঝে মাঝে অতিবৃষ্টির জন্য দুকূল ছাপিয়ে জনজীবন বিধ্বস্ত করে ব্রহ্মপুত্র।

তিব্বত থেকে ব্রহ্মপুত্রের গতিপথ বদলে ফেলার ভয়ানক ছক কষছে চীন। এই কাজের জন্য প্রায় ১ হাজার কিলোমিটারের একটি টানেল তৈরি করতে চলেছে বেইজিং। ওই সুড়ঙ্গের মাধ্যমে তিব্বত থেকেই ব্রহ্মপুত্রের গতিপথ বদলে ওই নদকে জিনজিয়াং প্রদেশের দিকে প্রবাহিত করবে লাল চিন। এমনটাই খবর ছিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের কাছে। তবে বিষয়টি অজ্ঞাত কারণে ধামাচাপা পড়ে যায়। এবার গগৈর মন্তব্যে ফের শুরু হয়েছে জল্পনা।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন,চীন ওই টানেল বানালে প্রবল বিপাকে পড়বে ভারত ও বাংলাদেশ। তিব্বত থেকে শুষ্ক জিনজিয়াং প্রদেশে জল প্রবাহিত করলে কমে যাবে ব্রহ্মপুত্রের পানিস্তর। ফলে বিঘ্নিত হবে প্রবাহ। যার জেরে ভয়ানকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে ভারতের উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলি। জল কমে যাওয়ায় কৃষিকার্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়বে। শুধু তাই নয়, সুড়ঙ্গ থেকে জল ছাড়লে প্লাবিত হতে পারে নিচু জায়গাগুলি। একই অবস্থা হবে বাংলাদশেও। ফলে চিনের এই পদক্ষেপে উদ্বেগ ছড়িয়েছে দিল্লিতে।

জেএইচ

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত