spot_img
spot_img

শনিবার, ২১ মে ২০২২, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, বিকাল ৫:২৬

সর্বশেষ
বাগমারা প্রেসক্লাবের সভাপতি ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় গ্রেফতার, দ্রুত মুক্তির দাবি মহাসড়কে দুর্ঘটনা রোধে অতিরিক্ত গতির গাড়ির বিরুদ্ধে তৎপর হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়কে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে হেলমেট পরিধানে উদ্বুদ্ধ করছে হাইওয়ে পুলিশ খুলনায় বিএনপির মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিচার্জ বাগেরহাটে র‌্যাবের ভেজাল বিরোধী অভিযান, তিন প্রতিষ্ঠানকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা ইসলামী ব্যাংক ও পার্কভিউ হসপিটাল-এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিঃ ও বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড-এর মধ্যে ‘মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রিপেইড মিটারের বিল প্রদান’ বিষয়ক চুক্তি স্বাক্ষর
প্রচ্ছদরোহিঙ্গা সংকটে বাংলাদেশকে সহযোগিতায় ভারতকে পাশে চায় যুক্তরাষ্ট্র
Array

রোহিঙ্গা সংকটে বাংলাদেশকে সহযোগিতায় ভারতকে পাশে চায় যুক্তরাষ্ট্র

আসন্ন বর্ষা মওসুমে কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবিরে বন্যার আশঙ্কায় বাংলাদেশকে সহযোগিতায় ভারতের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করতে আগ্রহী যুক্তরাষ্ট্র। এ বিষয়ে ভারতকে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে এক সিনিয়র মার্কিন কর্মকর্তা জানান, আমরা (যুক্তরাষ্ট্র) মনে করি পরিস্থিতি সমাধানে ভারতেরও আগ্রহ রয়েছে। মঙ্গলবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দু এ খবর জানিয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপ-সহকারী এবং দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়ার পরিচালক লিসা কার্টিসের সাম্প্রতিক সফরে যুক্তরাষ্ট্র ভারতকে রোহিঙ্গা সংকটে এই যৌথ সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছে। লিসা কার্টিস যুক্তরাষ্ট্রের ভারত ও ভারত মহাসাগর বসন্ত সাঙ্গেরার দায়িত্বেও রয়েছেন। সম্প্রতি তিনি ঢাকা, দিল্লি, কাবুল ও ইসলামাবাদ সফর করেন। বাংলাদেশ সফরে তিনি কুতুপালং-বালুখালি রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করেন। বর্তমানে এককভাবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় শরণার্থী শিবির এটি। এখানে অবস্থান করছেন প্রায় ৬ লাখ রোহিঙ্গা।

গত বছরের ২৫ আগস্ট রাখাইনের কয়েকটি নিরাপত্তা চৌকিতে হামলার পর পূর্ব-পরিকল্পিত ও কাঠামোবদ্ধ সহিংসতা জোরালো করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। হত্যা-ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধারার সহিংসতা ও নিপীড়ন থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রায় ৭ লাখ মানুষ। মিয়ানমারের সরকারি বাহিনীর রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের ঘটনাকে জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশন ইতোমধ্যে ‘জাতিগত নির্মূলের পাঠ্যপুস্তকীয় দৃষ্টান্ত’ আখ্যা দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রও এই ঘটনাকে জাতিগত নিধনযজ্ঞ বলে আখ্যায়িত করেছে। কিন্তু মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অভিযানকে সমর্থন জানিয়ে আসছে। সেনাবাহিনীর অভিযানের কোনও সমালোচনা করা হয়নি ভারতের পক্ষ থেকে। তবে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সহযোগিতা পাঠিয়েছে দেশটি।

সিনিয়র ওই মার্কিন কর্মকর্তা বলেন, ‘বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের প্রয়োজনীয়তা মেটানোর ক্ষেত্রে আমরা ভারতের সঙ্গে কাজ করার উপায় খুঁজছি। একই সঙ্গে তাদের নিরাপদে ও স্বেচ্ছায় ফিরিয়ে নিতে বার্মার (মিয়ানমার) উপর চাপ প্রয়োগের জন্য কাজ করার চেষ্টা করছি।’ মার্কিন এই কর্মকর্তা ভারতকে ‘সমমনা অংশীদার’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

জাতিসংঘের ইন্টার-সেক্টর কোঅর্ডিনেশন গ্রুপ (আইএসসিজি) বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শিবিরগুলো পরিচালনা করছে। সম্প্রতি সংস্থাটির পক্ষ থেকে পরবর্তী বছরে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার জন্য ৯৫০ মিলিয়ন ডলারের তহবিল সংগ্রহের উদ্যোগ নিয়েছে। তারা সতর্ক করে জানিয়েছে, এপ্রিল থেকে জুন বর্ষা ও ঘূর্ণিঝড়ের মওসুমে রোহিঙ্গা শিবিরের আশ্রয় কার্যক্রম মারাত্মকভাবে ব্যহত হতে পারে। আইএসসিজি জানিয়েছে,প্রতিদিন ১৬ মিলিয়ন লিটার নিরাপদ খাবার পানি, ১২ হাজার ২০০ মেট্রিক টন খাবার, ২০০টি স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ৫০ হাজার টয়লেট ও ৫ হাজার ক্লাসরুম নির্মাণ জরুরি।

১ থেকে ৪ মার্চ বাংলাদেশ সরকার ও আইএসসিজি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পর মার্কিন প্রতিনিধি দল ভারতের পররাষ্ট্র সচিব বিজয় গোখলে ও অন্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। ৫ মার্চ গোখলের সঙ্গে বৈঠক করেন  কার্টিস। বৈঠকের বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়নি। পরে গত সপ্তাহে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা ওয়াশিংটনে গোখলের সঙ্গে আরেকটি বৈঠক করেন। এসব বৈঠকে বাংলাদেশকে সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা হয়।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত