spot_img
spot_img

বুধবার, ১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, রাত ১২:০৬

প্রচ্ছদমিষ্টি কুমড়া কেন খাবেন?
Array

মিষ্টি কুমড়া কেন খাবেন?

 পুষ্টিগুণে ভরপুর, দামেও সস্তা। আবার সারা বছরই পাওয়া যায়। এমন সবজিগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো মিষ্টি কুমড়া। হালকা মিষ্টি স্বাদের এই সবজিটির নানা স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে। মিষ্টি কুমড়ায় ভিটামিন এ, বি-কমপ্লেক্স, সি এবং ই, পটাশিয়াম, ক্যারটিনয়েড প্রভৃতি নানা উপাদান রয়েছে। এই উপাদানগুলো শুধু রোগ প্রতিরোধেই ভূমিকা রাখে না, একই সঙ্গে আপনার সুস্থতাও নিশ্চিত করে। কাজেই স্বাস্থ্যের সুরক্ষায় দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় মিষ্টি কুমড়া রাখুন।
হাফিংটন পোস্ট অবলম্বনে জেনে নিন মিষ্টি কুমড়ার ৭ উপকারিতা-
দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে
ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ-এর মতে, দৈনিক যতটুকু ভিটামিন এ গ্রহণ করতে বলা হয় এক কাপ রান্না করা মিষ্টি কুমড়ায় ২০০ ভাগেরও বেশি ভিটামিন এ বিদ্যমান থাকে। এ ছাড়া এতে উচ্চ পরিমাণে ক্যারোটিনয়েড রয়েছে, যা দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে সাহায্য করে। মিষ্টি কুমড়ায় বিদ্যমান বিটা-ক্যারোটিন চোখের ছানি পড়া রোধসহ রেটিনার কোষকে রক্ষা করে। তাই চোখের সুরক্ষায় মিষ্টি কুমড়া খাওয়ার বিকল্প নেই।
ওজন কমায়
মিষ্টি কুমড়ায় উচ্চ ফাইবার রয়েছে। প্রতি এক কাপ মিষ্টি কুমড়ায় তিন গ্রাম তন্তু এবং মাত্র ৪৯ ভাগ ক্যালরি থাকে। তাই এই খাবারটি দীর্ঘ সময় পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। এর ফলে সহজেই ওজন কমে যায়।
খারাপ কোলেস্টেরল কমায়
মিষ্টি কুমড়ার বিচিতে ফাইটোসটেরল নামের প্রাকৃতিক উপাদান বিদ্যমান থাকায় তা খারাপ কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। এ ছাড়া মিষ্টি কুমড়ায় প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম রয়েছে, যা হৃদরোগ ও উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে।
ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়
ন্যাশনাল ক্যান্সার ইন্সটিটিউটের মতে, মিষ্টি কুমড়ায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বেটা ক্যারোটিন বিদ্যমান থাকায় এটি ক্যান্সার প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। শুধু মিষ্টি কুমড়া নয়, এর বিচিও সুনির্দিষ্ট কিছু ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সাহায্য করে।  
ত্বকের সুরক্ষায়
হেলথ ম্যাগাজিনের মতে, ত্বকের বলিরেখা দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে মিষ্টি কুমড়া। এর ফলে বয়সের ছাপ সহজে পড়ে না। আবার চুলপড়া কমাতে ও চর্মরোগ প্রতিরোধেও ভূমিকা রাখে এই সবজিটি।
মেজাজ ভালো রাখে
মিষ্টি কুমড়ার বিচিতে উচ্চ মাত্রার অ্যামাইনো অ্যাসিড ট্রিপটোফ্যান বিদ্যমান রয়েছে। এদের মধ্যে ট্রিপটোফ্যান আপনাকে ভালো ঘুমাতে সাহায্য করে। আর অ্যামাইনো অ্যাসিড সেরোটোনিন উৎপাদনে গুরুত্বপূর্ণ। এগুলোই আমাদের মেজাজ ভালো রাখতে সাহায্য করে।
ইমিউন সিস্টিমের উন্নতি ঘটায়
মিষ্টি কুমড়ায় ভিটামিন সি ছাড়াও আরও অনেক পুষ্টি উপাদান রয়েছে যেগুলো আপনার ইমিউন সিস্টেমকে ভালো রাখতে সাহায্য করে। এ ছাড়া রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে সর্দি-কাশি, ঠাণ্ডা লাগা প্রতিরোধেও ভূমিকা রাখে মিষ্টি কুমড়া। তাই স্বাস্থ্য সুরক্ষায় প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় মিষ্টি কুমড়া রাখুন।
 

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত