spot_img
spot_img

শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, রাত ১০:০৩

প্রচ্ছদকাজে আর মন বসে না- এমন সমস্যায় ভুগছেন?
Array

কাজে আর মন বসে না- এমন সমস্যায় ভুগছেন?

অফিসে যান ঠিকই, কিন্তু অফিসের কাজে আর মন বসে না- এমন সমস্যায় ভুগছেন? কাজ করতে নিলেই মনে হচ্ছে এই কাজ বুঝি আপনার জন্য নয়! ফলাফল হচ্ছে অবসাদ। আমেরিকার ‘কেস ওয়েস্টার্ন রিজার্ভ ইউনিভার্সিটি’র বিশেষজ্ঞেরা কয়েকজন ছাত্রের উপর একটি পরীক্ষা করে জানাচ্ছেন, কাজ শুরু করার আগেই সেই কাজের চাপ এবং কাজটি কখন শেষ হবে, এই ভেবে ভয় পায় মানুষ। ফলে শুরুতেই মনে বাসা বাঁধে অবসাদ। তাই কাজে মন বসানোর সবচেয়ে সহজ ট্রিকই হল কাজটিকে সহজ মনে করা। প্রথমেই টার্গেটের দিকে নজর না রেখে কাজের দিকে পুরোপুরি মনোসংযোগ করা।

স্ট্রেস কাটানোর সবচেয়ে বড় উপায় হলো, যেকোনো কাজকেই চ্যালেঞ্জিং মনে করা। মনোবিদেরা জানাচ্ছেন, আপনার হাতে যদি কোনো বড় প্রজেক্ট থাকে তাহলে সেটিকে ছোট ছোট ভাগে ভেঙে নিন। কাজের সময় আপনার মনের মতো করে সাজিয়ে নিন। এবার কাজটি শুরু করুন।

কাজের বিষয়ের বাইরেও পড়াশোনা করার অভ্যাস থাকলে সেটা মন ভালো রাখতে খুবই সাহায্য করে। বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন, কাজের চিন্তা কমাতে প্রতিদিন নিয়ম করে একটা নির্দিষ্ট সময়ে বই পড়ার অভ্যাস রাখুন। তাতে কাজে মন বসে খুব তাড়াতাড়ি। মনও অনেক ফুরফুরে থাকে।

অফিসে গিয়ে বসেছেন, কিন্তু কাজ শুরুই করতে পারছেন না। মনকেচাঙ্গা করতে নিজের পছন্দের গান শুনুন, মনোবিদদের মতে, এই টোটকা মন্ত্রের মতো কাজ করে।

আপনার পছন্দের মানুষদের সঙ্গে কিছু সময় গল্প করে নিন। তাহলে মন ফের চাঙ্গা হয়ে উঠবে। কাজে গতি আসবে।

স্ট্রেস কাটানোর সবচেয়ে বড় উপায় হলো, যেকোনো কাজকেই চ্যালেঞ্জিং মনে করা। মনোবিদেরা জানাচ্ছেন, আপনার হাতে যদি কোনো বড় প্রজেক্ট থাকে তাহলে সেটিকে ছোট ছোট ভাগে ভেঙে নিন। কাজের সময় আপনার মনের মতো করে সাজিয়ে নিন। এবার কাজটি শুরু করুন।

কাজের বিষয়ের বাইরেও পড়াশোনা করার অভ্যাস থাকলে সেটা মন ভালো রাখতে খুবই সাহায্য করে। বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন, কাজের চিন্তা কমাতে প্রতিদিন নিয়ম করে একটা নির্দিষ্ট সময়ে বই পড়ার অভ্যাস রাখুন। তাতে কাজে মন বসে খুব তাড়াতাড়ি। মনও অনেক ফুরফুরে থাকে।

অফিসে গিয়ে বসেছেন, কিন্তু কাজ শুরুই করতে পারছেন না। মনকেচাঙ্গা করতে নিজের পছন্দের গান শুনুন, মনোবিদদের মতে, এই টোটকা মন্ত্রের মতো কাজ করে।

আপনার পছন্দের মানুষদের সঙ্গে কিছু সময় গল্প করে নিন। তাহলে মন ফের চাঙ্গা হয়ে উঠবে। কাজে গতি আসবে।

৩০ মিনিটের ছোট্ট ঘুম, যাকে বলে ‘পাওয়ার ন্যাপ’ স্ট্রেস কাটাতে সাহায্য করে। কাজে একঘেয়েমি আসে না। তবে অবশ্যই কাজের গুরুত্ব এবং সময় সুযোগ বুঝে।

কাজের ফাঁকে বিরতি নিন। একটানা কাজ না করে মাঝে ৫ থেকে ১০ মিনিটের বিরতি মন ভালো রাখতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে।

সবসময় ইতিবাচক চিন্তা করুন। নিজের ছোট ছোট সাফল্যগুলোকে উদযাপন করুন। মনে করুন এই সাফল্য শুধু আপনারই জন্য। একমাত্র আপনিই এই কাজটা করতে পারতেন। এই ভাবনা মনে অবসাদ বাসা বাধতে দেয় না। ফলে সবসময় কাজ করার উৎসাহ থাকে।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত