spot_img
spot_img

রবিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ৯ মাঘ ১৪২৮, ভোর ৫:৫৫

প্রচ্ছদহংকংকে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ
Array

হংকংকে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

চার জাতি জকি ক্লাব নারী ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দল। নিজেদের তৃতীয় এবং শেষ ম্যাচে স্বাগতিক হংকংয়ের বিপক্ষে ৬-০ গোলে জয় পেয়েছে তহুরা-শামসুন্নাহাররা।

আজ রোববার সিউ সাই ওয়ান স্পোর্টস গ্রাউন্ডে হ্যাট্রিক করেছেন তহুরা খাতুন। সাজেদা খাতুন, শামসুন্নাহার, আনুচি মোগিনি একটি করে গোল করেন।
ম্যাচের প্রথম দিকেই আক্রমণে কুপোকাত হয় স্বাগতিকরা। চার মিনিটে গোল করে জাত চেনান তহুরা। ম্যাচের ৩৯ মিনিটে গোল দিয়ে দলকে আরও এগিয়ে দেন সাজেদা। পরের মিনিটে নিজের দ্বিতীয় ও দলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন তহুরা। প্রথমার্ধ ৩-০ গোলে শেষ হয়।

দ্বিতীয়ার্ধেও আগের মতো মাঠ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রাখে বাংলাদেশ দল। ৬৭ মিনিটে দলের চতুর্থ গোলটি করেন শামসুন্নাহার। ৭২ মিনিটে ফের গোল। এবারের স্কোরার আনুচিন মোগিনি।
দুই মিনিট পর হকংয়ের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠোকেন তহুরা। গোল দিয়ে তুলে নেন নিজের টানা দ্বিতীয় হ্যাট্রিক। শেষ পর্যন্ত ৬-০ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে চ্যাম্পিনরা। 

বাংলাদেশ-হংকং ছাড়াও এতে অংশ নেয় মালয়েশিয়া ও ইরান। লিগ পর্বে প্রত্যেকটি দল একে অপরের মুখোমুখি হয়। এতে প্রতিটিতেই বড় জয় পায় লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।
হংকংয়ে আমন্ত্রণমূলক এই ফুটবল টুর্নামেন্টে রীতিমত ঝড়ই তুলেছে বাংলাদেশের কিশোরীরা। শুক্রবার মালয়েশিয়াকে ১০-১ গোলে হারানোর পর গতকাল ইরানকে ৮-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারায় অনূর্ধ্ব-১৫ দলটি। 

নারী ফুটবলে টানা দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ট্রফি জিতলো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দল। রেকর্ড গড়ে তিন ম্যাচে ২৪ গোল করে এই সাফল্য এসেছে লাল-সবুজদের।
নারী বয়সভিত্তিক আন্তর্জাতিক ফুটবলে সাফল্য এবারই প্রথম নয় বাংলাদেশের। গত ডিসেম্বরে এই দলটাই অনূর্ধ্ব-১৫ সাফে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। 

২০১৪ ও ২০১৬ সালে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ নারীদের সাউথ-সেন্ট্রাল জোনের এ দুইবার চ্যাম্পিয়ন হয় গোলাম রাব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। 
২০১৪ সালে নেপাল থেকে এবং ২০১৬ সালে তাজিকিস্তান থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দেশে ফেরে বাংলাদেশের অদম্য কিশোরীরা।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত