spot_img
spot_img

মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, রাত ২:৫৪

প্রচ্ছদবাংলাদেশ-ভারতের পারস্পরিক সাংস্কৃতিক বিনিময় দুই দেশের সম্পর্কে নতুন মাত্রা
Array

বাংলাদেশ-ভারতের পারস্পরিক সাংস্কৃতিক বিনিময় দুই দেশের সম্পর্কে নতুন মাত্রা

সুসময়-দুঃসময়ে ভারত সবসময়ই বাংলাদেশের পাশে থাকবে । বাংলাদেশ-ভারতের পারস্পরিক সাংস্কৃতিক বিনিময় দুই দেশের সম্পর্কের নতুন মাত্রা দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।

তিনি বলেন, গান, নাচ, নাটকসহ সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড দুই দেশকে এক গভীর বন্ধনে আবদ্ধ করেছে। বিশেষ করে, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠকের পর, সেই সম্পর্ক আরও গভীর হয়েছে। সুসময় ও দুঃসময়ে ভারত সবসময়ই বাংলাদেশের পাশে থাকবে।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের আয়োজনে ও ভারতীয় হাই কমিশনের সহযোগিতায় আয়োজিত ‘বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী নাট্যোৎসব-২০১৮’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক বলেন, বর্তমানে সমাজের অগ্রভ্রমণ আটকা পড়ে আছে। যখনই সমাজ অগ্রগতির দিকে ধাবিত হচ্ছে, তখনই সমাজের টুঁটি চেপে ধরতে ধেয়ে আসছে অপশক্তি। এই শক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সুস্থ সংস্কৃতি চর্চার বিকল্প নেই।

অনুষ্ঠানে নাট্যকলা বিভাগের সভাপতি ড. আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, নাট্যব্যক্তিত্ব অধ্যাপক মলয় ভৌমিক ও রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্য বিভাগের অধ্যাপক সোমনাথ সিনহা।

এর আগে সন্ধ্যা ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সৈয়দ ইসমাইল হোসেন সিরাজী ভবন চত্বরে এ উৎসবের উদ্বোধন করেন রাবি উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুস সোবহান। উদ্বোধন শেষে বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত