শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭, সকাল ৮:৫০

প্রচ্ছদ শীর্ষ সংবাদ ফ্লাইট পরিচালনার অনুমোদন পাচ্ছে ৪ বিদেশি এয়ারলাইন্স

ফ্লাইট পরিচালনার অনুমোদন পাচ্ছে ৪ বিদেশি এয়ারলাইন্স

বাংলাদেশে ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি পাচ্ছে আরও ৪টি এয়ারলাইন্স। তারা হচ্ছে মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্স, মালিন্দো এয়ার, এয়ার এরাবিয়া এবং টার্কিশ এয়ারলাইন্স। দুই-এক দিনের মধ্যে তাদের ফ্লাইট চালানোর অনুমতি দিতে পারে বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

বেবিচকের দায়িত্বশীল সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। বেবিচক জানায়, কয়েকটি এয়ারলাইন্স বাংলাদেশে ফ্লাইট চালুর জন্য আবেদন করেছিল। গত দুই সপ্তাহ ধরে তাদের আবেদন পেন্ডিং রাখা হয়েছিল। তবে এ বিষয়ে রোববার একটি সভা আয়োজন করা হবে। এরপর ২-১ দিনের মধ্যে ফ্লাইট চলাচলের অনুমতির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসবে।

অনুমতি পেয়ে যাওয়া এয়ারলাইন্সগুলোর মধ্যে মালিন্দো এয়ার ও মালয়েশিয়ান এয়ার মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর থেকে ঢাকা রুটে সরাসরি যাত্রী পরিবহন করতে চায়। মালয়েশিয়ান সিভিল এভিয়েশনের বিধান অনুযায়ী বর্তমানে সেদেশে বাংলাদেশের ‘বিজনেস ভিসা’ধারী অন্যদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। মালয়েশিয়ান এয়ার ও মালিন্দো কুয়ালালামপুর হয়ে অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়াসহ দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশি যাত্রী বহন করে আসছে।

টার্কিশ এয়ার ঢাকা থেকে তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনার জন্য আবেদন করেছে। ট্রানজিটের মাধ্যমে ইউরোপের বিভিন্ন দেশের যাওয়ার জন্য বাংলাদেশিদের কাছে টার্কিশ এয়ারলাইন্স বেশি জনপ্রিয়। আর এয়ার এরাবিয়া সংযুক্ত আরব আমিরাতের দেশ শারজাহ থেকে ঢাকায় সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করতে চায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান বলেন, আমরা তাদের আবেদন পেয়েছি। এগুলো যাচাই-বাছাই করছি। স্ব স্ব দেশের সিভিল এভিয়েশনের সাথে কথা বলছি, যাতে আমাদের দেশের এয়ারলাইন্সগুলোও সেদেশে যাওয়ার বিধান রাখা হয়। এছাড়াও আগে যেসব রুটের ফ্লাইট চালু করা হয়েছে (লন্ডন, কাতার, দুবাই) সেগুলো রিভিউ করছি। সবমিলে আমরা ২-১ দিনের মধ্যে অনুমোদনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

এর আগে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গত ২১ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত যুক্তরাজ্য, চীন, হংকং, থাইল্যান্ড ছাড়া সব দেশের সঙ্গে এবং অভ্যন্তরণীণ রুটে যাত্রীবাহী ফ্লাইট চলাচল বন্ধের ঘোষণা দিয়েছিল বেবিচক। এরপর আরেকটি আদেশে চীন বাদে সব দেশের সাথে ৭ এপ্রিল পর্যন্ত বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এই নিষেধাজ্ঞা সরকারি সাধারণ ছুটির সাথে সমন্বয় করে পর্যায়ক্রমে ১৪ ও ৩০ এপ্রিল, ৭ , ১৬ ও ৩০ মে এবং ১৫ জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়। ১৬ জুন থেকে ঢাকা থেকে লন্ডন রুটে ও কাতার রুটে এবং ২১ জুন থেকে এমিরেটসকে ফ্লাইট চলাচল করার অনুমতি দেয় বেবিচক।

মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

সর্বাধিক পঠিত