spot_img
spot_img

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, রাত ৮:৫৫

প্রচ্ছদশীর্ষ সংবাদশৈলকুপায় অনৈতিক কাজ দেখে ফেলায় মহিলার উপর হামলা

শৈলকুপায় অনৈতিক কাজ দেখে ফেলায় মহিলার উপর হামলা





ঝিনাইদহের শৈলকুপায় রাতের আধারে পরকীয়া সম্পর্ক করে অনৈতিক কাজ করার সময় রতিডাঙা গ্রামের জামিরুল ইসলামের স্ত্রী রুপালি খাতুন নামে এক মহিলা দেখে ফেলায় তার উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার কাচেঁরকোল ইউনিয়নের রতিডাঙা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। হামলায় আহত রুপালি খাতুন জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে তিনি বাথরুমে যাওয়ার জন্য বাহিরে বের হলে তার বাড়ীর পাশে বাগানে শব্দ শুনে লাইট জালায়। এসময় ওই গ্রামের ওয়াদুদ মোল্লার সাথে এক মহিলাকে অনৈতিক কাজ করা অবস্থায় দেখতে পায়। তখন তিনি চিৎকার করলে প্রতিবেশী মনোয়ার ও আওয়াল নামে দুই জন লাইট হাতে বেরিয়ে আসে।

তারা ওয়াদুদ মোল্লা ও এক মহিলাকে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকাবস্থায় হাতেনাতে আটক করে। এরপর ওয়াদুদ মোল্লা তাদের কাছে হাত জোড় করে ক্ষমা চেয়ে কাউকে কিছু না বলতে অনুরোধ করে সেখান থেকে চলে যায়। বিপদ থেকে উদ্ধার হওয়ার এক ঘন্টা পরই ভোল পাল্টে যায় ওয়াদুদ মোল্লার। পরক্ষনেই কয়েকজন ব্যক্তি মুখ বেধে প্রত্যক্ষদর্শী রুপালির বাড়ীতে ঢুকে তাকে বেধড়ক মারপিট করে আহত করে। রুপালির চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে শৈলকুপা হাসপাতালে ভর্তি করে।

রতিডাঙা গ্রামের রুপালির প্রতিবেশী আওয়াল জানায়, রাতে রুপালী খাতুনের চিৎকারে বাইরে এসে বাগানে রতিডাঙা গ্রামের ওয়াদুদ মোল্লাকে এক মহিলার সাথে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পায়, তিনি শেখপাড়া বাজারে ঔষুধের দোকানদার। এসময় তিনি আমাদের কাছে ক্ষমা চাইলে আমরা ওয়াদুদ মোল্লা ও সেই মহিলাকে ছেড়ে দেই। কিন্ত তার কিছু সময় পরে প্রত্যক্ষদর্শী রুপালির উপর হামলা হয়। রুপালির বাড়ীর লোকজনের চিৎকারে ছুটে এসে স্থানীয়রা রুপালি বেগমকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।
রতিডাঙা গ্রামের মনোয়ার হোসেন জানায়, ওই দিন রাতে ওয়াদুদ মোল্যা আমাদের অনৈতিক কাজের ঘটনা চেপে যেতে বলে, আবার তিনি রাতের আধারে রুপালি নামের এক মহিলার উপর হামলা করিয়েছে। এই ঘটনা মিমাংসার জন্য তিনি চাপ প্রয়োগ করছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ওয়াদুদ মোল্লা বলেন, আমি সন্ত্রাসী রবি ও খোকনের ভাই। আপনারা যতবড় সাংবাদিক হোননা কেন বেশি বাড়াবাড়ি করবেন না, এ ঘটনায় লেখালেখি করবেন না। আমি বিষয়টি সামাজিক ভাবে মিমাংশা করার চেষ্টা করছি। এ ঘটনার পরে স্থানীয়রা ঔষুধ ব্যবসায়ী ওয়াদুদ মোল্লার বিষয়ে মুখ খুলতে শুরু করেছে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, ওয়াদুদ মোল্লা একজন লম্পট। সন্ত্রাসী রবি ও খোকনের ভাই পরিচয়ে তিনি এলাকায় প্রভাব খাটিয়ে আসছে। রাতের আধারে গ্রামের মধ্যে ঢুকে গৃহবধুদের ভয়ভীতি ও অর্থের লোভ দেখিয়ে অনৈতিক কাজ করে বলে অহরহ অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও হিন্দু মহিলাদের প্রতি তার লালসা বেশী। তার অত্যাচারে এলাকার মানুষ সন্ধার পর বাইরে বের হওয়া তো দুরের কথা মহিলারা ঘরেই নিরাপদ না। সব কিছু দেখার পরও ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাইনা।

বার্তা প্রেরক
মনিরুজ্জামান সুমন
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি







মন্তব্য করুন:

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বাধিক পঠিত